Asianet News BanglaAsianet News Bangla

China unfurls flag in Galwan: ফের গালওয়ানে চিনা আগ্রাসন, মোদীকে নীরবতা ভাঙতে আহ্বান রাহুলের

নতুন বছরের প্রথম দিনই পূর্ব লাদাখের (East Ladakh) গালওয়ান উপত্যকায়  (Galwan Valley) উড়ল চিনা (China) জাতীয় পতাকা। এই নিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে (Narendra Modi) নীরবতা ভাঙার আহ্বান জানালেন রাহুল গান্ধী।

China unfurls flag in Galwan Valley, Rahul Gandhi slams Modi govt ALB
Author
Kolkata, First Published Jan 3, 2022, 1:51 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

নতুন বছর শুরুতেই ফের শুরু হল, ভারতীয় ভূখণ্ডে ফের চিনা (China) আগ্রাসন। ঘটনাস্থল সেই গালওয়ান উপত্যকা (Galwan Valley)। গত একটা বছর একের পর এক সামরিক বৈঠকের পর পূর্ব লাদাখের (East Ladakh) এই উপত্যকাটি সহ, বেশ কয়েকটি জায়গা থেকে সরে এসেছিল চিন ও ভারতের সেনা। কিন্তু, নতুন বছরের একেবারে প্রথম দিন, অর্থাৎ ১ জানুয়ারিতেই, গালওয়ানে উড়ল চিনের পতাকা। চিনা জাতীয় পতাকা উড়িয়ে ফের গালওয়ান উপত্যকা তাদের বলে দাবি করল বেজিং। আর এই নিয়ে ফের একবারে বিরোধীদের নিশানায় মোদী সরকার (Modi Govt)। 

বস্তুত, এর আগে গোপনে গালওয়ান উপত্যকার চিনা পিএলএ (Chinese PLA) অনুপ্রবেশ করলেও, এবার গালওয়ানে চিনের পতাকা তোলার ভিডিও, চিন সরকারের বিভিন্ন মুখপত্রে প্রকাশিত হয়েছে। চিনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম, গ্লোবাল টাইমস-ও টুইট করেছে ওই অনুষ্ঠানের ভিডিও। সঙ্গে লিখেছে, '২০২২ সালের ১ জানুয়ারি, ভারত সীমান্তের কাছে গালওয়ান উপত্যকায়, 'কখনও এক ইঞ্চি জমি ছাড়ব না' লেখার নিচ থেকে পিএলএ সৈন্যরা, চিনা জনগণকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা পাঠায়েছে'। চিনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের অন্যতম প্রতিনিধি শেন শিওয়েই ওই পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানের আরেকটি ভিডিও টুইট করেছে। তিনি জানান, যে পতাকাটি তোলা হয়েছে গালওয়ান উপত্যকায়, ওই একই পতাকা একবার বেজিংয়ের তিয়ানানমেন স্কোয়ারে (Tiananmen Square) তোলা হয়েছিল।

এদিকে এই ভিডিওগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই, ভারতের বিরোধী দলগুলি মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) টুইট করে গালওয়ানে চিনা 'অনুপ্রবেশ' নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে (PM Narendra Modi) 'নিরবতা ভাঙতে' বলেছেন। রবিবার, টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, 'গালওয়ানে আমাদের তেরঙ্গা পতাকাই দেখতে ভাল লাগে। চিনকে জবাব দিতে হবে। মোদীজি, নীরবতা ভাঙুন।'

দিন কয়েক আগেই চিন, অরুণাচল প্রদেশের ১৫ টি স্থানের নাম পরিবর্তন করে তাদের সরকারি মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করেছিল অরুণাচলকে। সেই সময় সরকার কড়া প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে জানিয়েছিল, প্রকাশ করেছিল, অরুণাচল প্রদেশ রাজ্য ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। ৩০ ডিসেম্বর বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেছিলেন, আগেও চিন অরুণাচল প্রদেশের বিভিন্ন স্থানের নাম পরিবর্তনের চেষ্টা করেছে। তবে, নাম বদলে দিলেই, অরুণাচল প্রদেশ যে ভারতের অংশ, এই সত্যিটাকে পাল্টানো যাবে না। সেই সময়ও নরেন্দ্র মোদী সরকারকে কটাক্ষ করেছিলেন রাহুল গান্ধী। টুইট করে ১৯৭১ সালের বাংলাদেশ যুদ্ধের প্রসঙ্গ তুলেছিলেন। বলেন, 'দেশের নিরাপত্তা এবং বিজয়ের জন্য, বিজ্ঞ এবং দৃঢ় সিদ্ধান্তের প্রয়োজন। ফাঁপা কথায় জেতা যায় না।'

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios