দীর্ঘ দিন ধরেই নীতিশ কুমারে আপত্তি জানিয়ে আসছিলেন লোক জনশক্তি পার্টির প্রধান রাম বিলাশ পাসোয়ান আর তাঁর পুত্র চিরাগ পাসোয়ান। কিন্তু তাঁদের মতামত উপেক্ষা থেকেই বিহার বিধানসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রকাশ্য সমাবেশে নীতিশ কুমারে আস্থা রেখেছিলেন। পাশাপাশি জানিয়েছিলেন এনডিএ নীতিশ কুমারের নেতৃত্বেই বিহার নির্বাচনে লড়াই করবে। আর সেই মত  বিজেপি আর জেডিইউ ৫০:৫০ অনুপাতে আসনও রফা করে। আর বিজেপ প্রাপ্য আসন থেকেই ১৫টি আসন লোক জনশক্তি পার্টিকে দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়। কিন্তু তাতে মন গলেনি চিরাগ পাসোয়ানের। 

রবিবার বিকালে এলজেপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালিক জানিয়েছেন, আসন্ন বিহার নির্বাচনে একলা চলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাঁর দল। নীতিশ কুমারের দল জেডিইউ-র সঙ্গে আদর্শগত মতপার্থক্য থাকায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন জাতীয় স্তরে আর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি শক্তপোক্ত মিত্র লোক জনশক্তি পার্টি। সেই সম্পর্কে কোনও ইতি পড়ছে না। সূত্রের খবর ২৪৩ আসন বিশিষ্ট বিহার বিধানসভা নির্বাচনে ১৪৩টি আসনে প্রার্থী দিতে চলেছে লোকসজশক্তি পার্টি। তবে দলের পক্ষ থেকে বিজেপি প্রার্থীদের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বীতা না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে এটি বিজেপি আর লোক জনশক্তি পার্টির জোট। 

শনিবারই এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রামবিলাশ পাসোয়ান অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁকে দিল্লির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে চিরাগ পাসোয়ান সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন, রাতেই তাঁর বাবার অস্ত্রোপচার হয়েছে। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রামবিলাশ পাসোয়ানের খোঁজখবর নিয়েছেন। পাশাপাশি এদিন চিরাগ পাসোয়ান ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন বিজেপির সঙ্গে তাঁদের কোনও মতপার্থক্য নেই। কিন্তু সরব হয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের বিরুদ্ধে। তিনি বলেছেন গত পাঁচ বছরে প্রতিশ্রুতি পুরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন নীতিশ কুমার। নীতিশের আমলে উন্নয়ন থমকে গেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত আরও শক্তি করার কথাও বলা হয়েছে।