নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পাওয়ার মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বাড়িতে তৈরি করা হল করোনাভাইরাসের হাসপাতাল। আর সেখানে বদলি করে আনা হল দেওয়া হল ৬ ডাক্তার ও তিন জন নার্সকেও। ব্যবস্থা করা হয়েছে একটি ভেন্টিলেটরেরও। অতিমারির এই ভয়ঙ্কর সময়ই বিহারে দেখা গেল এই ভিভিআইপি সংস্কৃতি। 

একনম্বর অ্যান মার্গ বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের সরকারবি বাসভবন। সেখানেই থাকের তাঁর ভতুষ্পুত্রী। মঙ্গলবার নমুনা পরীক্ষার পর জানা যায় সেই মহিলা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তারপরই তড়িঘড়ি সমস্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে। পাটনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সুপার বিমন কারার একটি নোটিশ জারি করে বলেছেন স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া নির্দেশিকা অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে একটি ভেন্টিলেটর সহ একটি হাসপাতাল চালু করতে হবে। ছয় জনের দল তিন শিফটে কাজ করবে। তিন জন নার্সকেও নিয়োগ করা হয়েছে। 


আর এই চটজলদি এই ব্যবস্থাপনাকেই হাতিয়ার করে ভোটের আগে রাজনীতির ময়দান গরম করেছেন প্রতিপক্ষ তেজস্বী যাদব। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় বলেছেন মুখ্যমন্ত্রীর কোভিড পরীক্ষা করা হয়। তার দুঘণ্টার মধ্যেই নমুনার রিপোর্ট হাতে পাওয়া যায়। ভাইঝির সংক্রমিত হওয়ার একটি ভেন্টিলেটরসহ হাসপাতালও চালু করা হয়েছে বাসভবনে। কিন্তু মহামারির চার  মাস পরেও সাধারণ মানুষ নূন্যতম পরিষেবা পাচ্ছেন না। 

মুখ্যমন্ত্রীর করোনা ভাইঝিকে ভর্তি করা হয়েছে পাটনা এইমস হাসপাতালে। সেখানে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। কিন্তু অস্থায়ী হাসপাতালটি মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে কাজকরবে। নীতিশ কুমারের পরিবারের সদস্যদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। পরিবারের কোনও সদস্যকে বাড়ির বাইরে বার হতে নিষেধ করা হয়েছে। গোটা বাড়ি তড়িঘড়ি স্যানেটাইজ করা হয়েছে।