করোনাভাইরাসের কারণ দেখিয়ে যৌথ সংসদীয় কমিটির সামনে হাজির হওয়া থেকে নিস্তার পেতে চাইছে আমাজন। ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা ও গোপনীয়তা বিল ২০১৯,  সংক্রান্ত বিষয়ে নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগ ওঠায় ফেসবুক, ট্যুইটার ও আমাজনকে  তবল করেছিল সংসদীয় কমিটি। শুক্রবার কমিটির সামনে হাজির হন ফেসবুকের ভারতের প্রধান নীতি নির্ধারক আঁখি দায় ও সংস্থার বাণিজ্যিক প্রধান। তাঁদের প্রায় ২ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবদ করে সংসদীয় কমিটি। তবে হাজিরা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে অ্যামাজন। 

লিভ ইন সম্পর্ক বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা, মেয়েদের বিয়ের বয়স না বাড়ানোর আর্জি ..

আগামী ২৮ অক্টোবর আমাজনকে সংসদীয় কমিটির সামনে হাজির হওয়ার কথা বলা হয়েছে। তবে সংস্থাটি যদি হাজির না হয় তাহলে আমাজনের বিরুদ্ধে বাধ্যতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে মার্কিন ই কমার্স  জায়ান্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিশেষজ্ঞরা বর্তমানে বিদেশে রয়েছেন। মহামারির কারণে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি লাগু থাকায় ভ্রমণে বিধিনিষেধ রয়েছে। আর সেই কারণেই ভ্রমণ করা যাচ্ছে না।  এই সময় এক স্থান থেকে অন্যত্র ভ্রমণ ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। 

ফেসবুকের আঁখি দাসকে জিজ্ঞাসাবাদ সংসদীয় কমিটির, হাজিরা এড়িয়ে গেল অ্যামাজন ...
সংসদীয় প্যালেনের প্রধান মীনাক্ষী লেখা জানিয়েছেন অ্যামাজন ২৮ অক্টোবর প্যানেসের সামনে হাজির হতে অস্বীকার করেছে। ই কমার্সের পক্ষ থেকে কেউ যদি হাজির না হয় তাহলে তা নিয়ম ভঙ্গের সামিল। সংস্থাটিকে নোটিশ পাঠান হতে পারে।  গতবছর সংসদে তথ্যের সুরক্ষা আর গোপনীয়তা বিষয়ক বিলটি খসড়া প্রবর্তন করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ। তিনি বলেছিলেন এটি সরকারকে বেনামে ব্যক্তিগত ও অ-ব্যক্তিগত তথ্য হিসেবে ফেসবুক, গুগুল, অন্যান্যদের জিজ্ঞাসাবাদের ক্ষমতা দিয়েছে। যদিও কংগ্রেস প্রথম থেকেই এজাতীয় বিল নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছিল।