এদেশে দৈনিক সংক্রমণে রেকর্ড অব্যাহত। যা পরিস্থিতি তাতে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই  ভারতে মোট আক্রান্ত ২০ লক্ষ পেরিয়ে  যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এদেশে  করোনা সংক্রমণের শিকার হয়েছেন ৫৬ হাজার ২৮২ জন। ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ লক্ষ ৬৪ হাজার ৫৩৭। এই নিয়ে টানা ৮ দিন ভারতে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজারের উপরে থাকল।

 

 

ভারতে মৃতের সংখ্যা এদিন ৪০ লক্ষের গণ্ডি ছুঁয়ে ফেলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড ১৯ রোগে মৃত্যু হয়েছে ৯০৪ জনের। ফলে মৃতের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০,৬৯৯।

আরও পড়ুন: আহমেদাবাদের করোনা হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন, মৃতদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা অনুদান ঘোষণা মোদীর

তবে এর মধ্যেই আশা জাগাচ্ছে সুস্থতার হার। মঙ্গলবার দেশে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন ৫১ হাজারের বেশি। বুধবারও সংখ্যাটা ছিল ৪৬,১২১। ফলে দেশে সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৬৭.১৯ শতাংশ। এখনও পর্যন্ত ভারতে রোগমুক্ত হয়েছেন ১৩ লক্ষ ২৮ হাজার ৩৩৬ জন। ফলে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে এখন সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৫ লক্ষ ৯৫ হাজার ৫০১।

আরও পড়ুন: ৩৭০ ধারা রদের বর্ষপূর্তিতে রাষ্ট্রসংঘে কাশ্মীর ইস্যু টেনে তোলার চেষ্টা চিনের, মুখ পুড়ল ইমরানেরই

এদিকে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ জানিয়েছে ৫ আগস্ট দেশে করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৬ লক্ষ ৬৪ হাজার ৯৪৯। ফলে দেশে এখনও পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২ কোটি ২১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৩৫১।

 

 

ভারতে করোনা আক্রান্ত রাজ্যগুলির মধ্যে এখনও একনম্বরে রয়েছে মহারাষ্ট্র। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৬৮ হাজার ছাড়িয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা তামিলনাড়ুর আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ৭৩ হাজার। এদেশে করোনা সংক্রমণে তৃতীয় স্থানে থাকা অন্ধ্র্রের মোট আক্রান্ত ১ লক্ষ ৭৬ হাজারের বেশি। চতুর্থ স্থানে রয়েছে দক্ষিণের আরেক রাজ্য কর্ণাটক। আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৫০ হাজার। আর রাজধানী দিল্লিতে সংক্রমণের শিকার ১ লক্ষ ৪০ হাজারের বেশি মানুষ। ক্রম তালিকায় বর্তমানে দিল্লি রয়েছে পঞ্চম স্থানে।