মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দেশে আবারও বাড়তে শুরু করেছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী বুধবার ২০ শতাংশ বেড়েছে সংক্রমিতের সংখ্যা। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বুধবার নতুন করে মারাত্মক ছোঁয়াছে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৬,২৫৪ জন। মঙ্গলবারের তুনলায় বুধবার আক্রান্তের সংখ্যা এক ধাক্কায় বেড়েছে প্রায় ৮ হাজার। মঙ্গলবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩৮,৩১০।  দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮৩,১৩,৮৭৭। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৫১৪ জনের। মহামারির কারণে দেশে মোট মৃত্যু হয়েছে ১,২৩,৬১১ জনের।

এক ঝলকে দেখে নিন দেশের  করোনাভাইরাসের চিত্র
 
মোট আক্রান্ত ৮৩,১৩,৮৭৭
মোট মৃত         ১,২৩,৬১১
২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৪৬,২৫৪
২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু        ৫১৪
অ্যাক্টিভ কেস           ৫,৩৩,৭৮৭
সম্পূর্ণ সুস্থ   ৭৬,৫৬,৪৭৮ 

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত সাত সপ্তাহ ধরে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই হ্রাস পেয়েছিল। সেপ্টেম্বর মাসের প্রায় পুরোটাই দৈনিক আক্রান্তের গড় ছিল ৯০ হাজারের বেশি। অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে তা কমে ৬০ হাজারে দাঁড়িয়ে ছিল। আক্টোবরের শেষ দুই সপ্তাহ থেকেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা উন্নতি হচ্ছে। ধীরে ধীরে কমছিল আক্রান্তের হার। আক্টোবরের শেষ সপ্তাহে করোনা আক্রান্তের গড় ৪০ হাজারে নেমে গিয়েছিল। যা স্বস্তি দিয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকে। কিন্তু আগে থেকেই উৎসবের মরশুমে মানুষকে সংযত হওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা। আর তখনই সতর্ক বলে বলা হয়েছিল উৎসবের মরশুমে সতর্ক না হলে আগামী দিয়ে করোনা বিপদ আরও বাড়তে পারে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন গত সপ্তাহ থেকেই দৈনিক মৃত্যুর গড়ও নিম্মমুখী। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী সেপ্টেম্বর মাসে যেখানে দৈনিক মৃত্যুর গড় ১ হাজারের বেশি ছিল যেখানে বর্তমানে মৃত্যুর হার ৫০০-র নিচে। 

 স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দিল্লি, কেরল, পশ্চিমবঙ্গসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। পাশাপাশি আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই নিম্মমুখী মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ুসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে।