লকডাউনের সময় একটু একটু করে বেড়েই চলেছে। এরমধ্যে যাদের বিয়ে করার কথা ছিল, তারা বেশ সমস্যায় পড়ছেন। কেউ কেউ আপাতত সইসাবুদ সেড়ে রেখে দিচ্ছেন, করোনা অভিশাপ দূর হলে সামাজিক বিয়ে সাড়বেন বলে, আবার কেউ কেউ লকডাউনের মধ্যেই অতিথি ছাড়া অনুষ্ঠান ছাড়াই করে ফেলছেন বিয়ে, বর-বউ'এর মুখ ঢাকা থাকছে মাস্কে। এবার মুম্বই-এর এক দম্পতিকে দেখা গেল লকডাউনের মধ্যে ছোঁয়াছুঁয়িহীনভাবে বিয়ে করতে। কিন্তু, তা করতে গিয়েই তাঁরা হয়ে গেলেন সোশ্য়াল মিডিয়ার খোরাক।

মুম্বাই-এর ওই বিয়ের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে ওই দম্পতি এক অনন্য উপায়ে মালা বদল করছেন। স্বামী-স্ত্রীকে কাছাকাছি হাজির করার জন্যই যে উপাচার, সেই মালাবদল তারা সাড়ছেন দুটি লাঠি ব্যবহার করে। মুখ ঢাকা মুখোশে এই অবস্থায় লাঠি দিয়ে ধরেই শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে একে অপর-কে মালা পরান তাঁরা। অনেকটা সুউচ্চ মূর্তিতে অনেকসময় যেমন নিচ থেকে বাশের আঁকশি বানিয়ে মালা পরানো হয়, সেইরকমভাবে।  

কিন্তু, এই 'কনট্যাক্টলেস ওয়েডিং' বা ছোঁয়াছুঁয়িহীন বিয়ে করেও তারা সোশ্য়াল মিডিয়ায় বাহবা কুড়োতে পারেনি। বরং, 'এরা কারা? কোথা থেকে এরা এসে জোটে?'- জাতীয় বিদ্রুপ করা হয়েছে তাদের বিয়ের ভিডিও নিয়ে। করোনাভাইরাস মহামারির প্রাদুর্ভাবে, ভারতীয়রা এখন দারুণভাবে ছোঁয়াছুঁয়ির বিষয়টা বুঝে নিয়েছেন। তাই ভিডিওটি ভাইরাল হতেই তাঁরা এই বিয়ে যে ছোঁয়াছুঁয়ি নয়, তা তারা ধরিয়ে দিয়েছেন।

প্রথমত, স্বামী-স্ত্রী দুজনের মুখে মাস্ক থাকলেও হাতে গ্লাভস নেই। দ্বিতীয়ত দুজনেই ওই একই লাঠি ব্যবহার করছেন। একজন লাঠিটি ধরে আরেকজনকে দিলে, পরোক্ষাভাবে দুজনের ছোঁয়া তো লাগলই। তাই ভিডিওটি বরং ছোঁয়াছুঁয়ির বিষয়ে মানুষ কোথায় ভুল করতে পারে, সেই বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করার কাজে আসবে বলে অনেকে দাবি করেছেন।