সেস্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের সপক্ষে সওয়াল করে এবার আসরে এলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ পুরী। সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক যুক্তি তুলে ধরে নিশানা করেন কংগ্রেসকে। তিনি বলেন সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প নিয়ে প্রথম থেকেই অপপ্রচার চালাচ্ছে শতাব্দী প্রাচিন এই দলটি। শুক্রবার সকাল রাহুল গান্ধী, কোভিড ১৯-এর মহামারিকালে এই প্রকল্পের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে একটি টুইট করেন। সেখানে তিনি বলেন এই সময় সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পে টাকা খরচ একটি অপরাধমূলক অপচয়। নতুন বাড়ির জন্য অনড় মনোভাব না দেখিয়ে আগে মানুষের জীবন বাঁচানো অনেক জরুরি। 

\

টুইটারে রাহুল গান্ধী এই মন্তব্য করার পরই তাঁকে তুলোধনা করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ পুরী জানিয়ে দেন সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের জন্য কেন্দ্রীয় সরকাপর বরাদ্দ করেছে ২০ হাজার কোটি টাকা। আর দেশে টিকাকরণএর জন্য তার তুলনায় দ্বিগুণ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন টিকা করণের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ৩ লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। 


তিনি আরও বলেন সেন্ট্রাল ভিস্তা একটি চলমান প্রকল্প। যা নিয়ে কংগ্রেস ছাড়া অন্য কেউ এমন উদগ্রীব নয়। সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পে অনেক উপাদান রয়েছে। যা বেশ কয়েক বছর ধরে তৈরি হবে। তিনি বলেন সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প নিয়ে কংগ্রেস বিভ্রান্তি তৈরি করতে চাইছে। মানুষকে ভুল বোঝাতে চাইছে বলেও টুইট বার্তায় অভিযোগ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। হরদীপ পুরী উদাহরণ স্বরূপ তুলে আনের মহারাষ্ট্রের এমএলএ হোস্টেল ও ছত্তিশগড়ের বিধানসভা বিল্ডিং-এর কথা। তিনি বলেন কংগ্রেস ও তাঁর মিত্ররা এই করোনা সংক্রমণ কালেই এই সব নির্মাণ কাজ চালিয়েছে যাচ্ছে। তাদের আপত্তি শুধুমাত্র সেন্ট্রাল ভিস্তাতেই। হরদীপ পুরী আরও বলেন ২০১২ তৎকালীন ইউপিএ সরকার নতুন সংসদ ভবনের প্রয়োজনীয়তার কাথা উল্লেখ করে চিঠি দিয়েছিল কিন্তু এখন সেই কংগ্রেসই সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের বিরোধিতা করছে।