গোটা দেশের প্রায় সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে কোভিড-১৯ এর দাপট কমছে। নতুন সংক্রমণের সংখ্য়া এবং কোভিড জনিত কারণে মৃত্যুর সংখ্যা - দুই ক্রমে কমার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এরমধ্যে ব্যতিক্রম শুধু দুই রাজ্য - কেরল এবং মহারাষ্ট্র। যা নিয়ে যারপরনাই উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় সরকার। এই পরিস্থিতিতে দুই রাজ্যেরই স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষকে কোভিড মোকাবিলায় সহায়তার জন্য কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক দুটি উচ্চ-স্তরের বহু-শাখা-বিশিষ্ট দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মঙ্গলবার ভারতের মোট করোনা রোগীর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১,০৭,৬৬,২৪৫-এ। এরমধ্যে চিকিৎসাধীন ১,৬৩,৩৫৩ জন। এর প্রায় ৭০ শতাংশ রোগীই কেরল ও মহারাষ্ট্রের। মহারাষ্ট্রে বর্তমানে মোট রোগীর সংখ্যা ২০,২৮,৩৪৭ জন এবং চিকিৎসাধীন ৪৪,৯৪৪ জন। আর কেরলের মোট রোগী ৯,৩২,৬৩৭ জন, চিকিৎসাধীন ৬৯,৪৫৬ জন।

মহারাষ্ট্রের যে কেন্দ্রীয় দল পাঠানো হচ্ছে তাতে, ন্যাশনাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (NCDC) এবং নয়াদিল্লির ডাক্তার রামমনোহর লোহিয়া হাসপাতালের বিশেষজ্ঞরা থাকছেন। আর কেরলে যে দলটি যাচ্ছে তাতে থাকছেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সিনিয়র আধিকারিকরা, এবং তিরুঅনন্তপুরম এবং লেডি হার্ডিঞ্জ মেডিকেল কলেজে অবস্থিত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের আঞ্চলিক কার্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা। এই বিশেষজ্ঞ দলগুলি সংশ্লিষ্ট রাজ্য স্বাস্থ্য বিভাগগুলির সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করবে, কোভিড পরিস্থিতির উপর নজর রাখবে এবং এই রাজ্যগুলিতে কোভিড মোকাবিলায় জন্য প্রযোজনীয় জনস্বাস্থ্যমূলক পদক্ষেপের সুপারিশ করবে।