নাম না করেই পাকিস্তানের তীব্র সমালোচনা করলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনি বলেন আমাদের এক প্রতিবেশী দেশ রয়েছে, যারা নিজেদের উদ্যোগে না তৈরি করতে পারে রাস্তা, না  নিজেরা ব্যবসা বাণিজ্য করতে পারে। না সেই রাস্তা দিয়ে চলা ফেরা করতে পারে। তিনি আরও বলেন নিজেরা ব্যবসা করতে পারে না। আবার অন্যদের ব্যবসা করা থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করে। ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনী পতাকা দিবস অনুষ্ঠানে প্রতিরক্ষা দেশের নিরাপত্তা, অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্ব বজায় রাখার জন্য দেশের নিরাপত্তাবাহিনী সক্রিয়া থাকে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের সেন্ট্রাল সৈনিক বোর্ড আয়োজিত সিএসআর কনক্লেভ অনুষ্ঠানে সকলের মাঝে উপস্থিত থাকতে পেরে তিনি খুশি হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন। রাজনাথ সিং বীর ও শহিদ জওয়ানদের প্রতিশ্রদ্ধা জানিয়েছেন। তিনি বলেন ভারতের অখণ্ডতা বজায় রখার জন্য অথবা সীমান্ত পেরিয়ে যে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ চলে তার বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য সর্বদা প্রস্তুত রয়েছে। করোনাভাইরাসের এর মহামারির সময়ও দেশের সেনা বাহিনী সক্রিয় রয়েছে বলেও জানিয়েছেন।  তিনি বলেন করোনা মোকাবিলা প্রথম দিকে গোটা দেশ কঠোরভাবে লকডাউন পালক করছিল। সেই সময় আমরা বাড়িতে বসে ছিলাম। কিন্তু তখনও দেশের জওয়ানরা সীমান্ত রক্ষার কাজে ব্রতী ছিলেন। তাঁরা শুধু নিরাপত্তাই দেয়নি প্রয়োজনে আত্মত্যাগও করেছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। রাজনাথ সিং আরও বলেন, দেশ ও সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে দক্ষ ব্যক্তিদের সহযোগিতায় এগিয়ে যাওয়াই আমাদের প্রাচিন ঐতিহ্য। একই সঙ্গে ১৯৬২ সালের যুদ্ধের কথাও স্মরণ করেন তিনি। 

পাকিস্তান পাক অধিকৃত কাশ্মীরে একটি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র তৈরি করছে চিনের উদ্যোগে। পাশাপাশি গাদ্দার বন্দর পর্যন্ত চিনের উদ্যোগে একটি রাস্তাও তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে। পাকিস্তানের এই দুটি পরিকল্পনায় আপত্তি জানিয়েছে ভারত। পাশাপাশি ভারত একাধিকবার পাকিস্তানকে বলেছে যেসব জায়গা তারা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে তা ছেড়ে দিতে হবে। কিন্তু পাকিস্তান এখনও পর্যন্ত পুরো বিষয়টি এড়িয়ে গেছে।