রবিবার, দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, তারা শাহিনবাগে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রতিবাদীদের সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বৈঠকের ব্যবস্থা করতে চেয়েছিল। সেই কারণে শাহিনবাগের বিক্ষোভকারীদের কাছে পুলিশ তাদের প্রতিনিধিদের বিবরণ চেয়েছিল। কিন্তু, বিক্ষোভকারীরা জানিয়ে দিয়েছেন, প্রতিনিধি দল নয়, তারা সবাই মিলেই দেখা করতে চান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে। স্বাভাবিকভাবেই দিল্লি পুলিশ সেই অনুমতি দিতে অস্বীকার করেছে।

শনিবারই শাহিনবাগের বিক্ষোভকারীরা জানিয়েছিলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিষয়ে তাদের উদ্বেগ জানাতে অমিত শাহ-এর সঙ্গে দেখা করতে প্রস্তুত। সেই কারণে রবিবার দুপুর ২টোয় তাঁরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের উদ্দেশে পদযাত্রা শুরু করবেন। তবে তাঁদের সঙ্গে আলোচনার জন্য সরকারে পক্ষ থেকে আহ্বান আসা উচিত ছিল বলেও জানিয়েছিলেন তাঁরা। শুধু তাই নয়, বিক্ষোভকারীদের একাংশ রবিবার বিকেলে এমনকী কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসভবনের উদ্দেশেও পদযাত্রা করবেন বলে জানিয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কর্মকর্তারা অবশ্য জানিয়ে দিয়েছেন, সিএএ-বিরোধী বিক্ষোভ নিয়ে আলোচনার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাপয়েন্টমেন্টের জন্য কোনও আবেদন তারা পাননি। তবে ঝামেলা এড়াতে দিল্লি পুলিশের পক্ষ থেকেই বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে দেখা করে নিরাপত্তার খাতিরে প্রতিনিধি দলে কারা কারা থাকবেন তা জানতে চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু, শাহিনবাগ কোনও প্রতিনিধি দল পাঠাতে রাজি নয়। পদযাত্রা করে সকলে মিলেই সেখানে গিয়ে হাজির হতে চায়।  এই নিয়ে আজ ফের রাজধানীর আবহাওয়া গরম হয়ে উঠতে পারে।

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জী এবং জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধক বা এনপিআর-এর বিরুদ্ধে গত দুই মাস ধরে শাহিনবাগে আন্দোলন চলছে। বিক্ষোভের সামনে রয়েছেন মহিলারা। তাদের দাবি তাদের প্রতিবাদটি 'নেতৃত্বহীন', তাই প্রতিনিধি দল তৈরি সম্ভব নয়। কাজেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকেই ঠিক করতে হবে তিনি কাদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান।