অবশেষে সিনিয়র পুলিশ কর্তাদের বারবার অনুরোধে গলল দিল্লির পুলিশকর্মীদের মন। বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে নিলেন তাঁরা। তার আগে অবশ্য পুলিশের যুগ্ম কমিশনারকে বিক্ষোভকারী পুলিশদের সব দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিতে হল। তাতেই তিসহাজারি কোর্টে আইনজীবী বনাম পুলিশ সংঘর্ষে পুলিশকর্মীদের মার খাওয়ার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সারাদিন ধরে দিল্লি পুলিশ সদর দপ্তরের সামনে চলা বিক্ষোভ উঠল।  

নাহলে তার আগে পর্যন্ত অবস্থা হাতের বাইরে চলে যাচ্ছিল। যুগ্ম কমিশনারের আগে পুলিশকর্মীদের বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে কাজে যোগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়ক। তাঁর কথায় কর্ণপাত করেননি প্রতিবাদী পুলিশ কর্মীরা। উল্টে স্লোগান ওঠে 'পুলিশ কমিশনার ক্যায়সা হো, কিরণ বেদী য্যায়সা হো'। সন্ধ্যার পুলিশ সদর দপ্তরের সামনে মোমবাদি মিছিলও করেন তাঁরা।

শুধু পুলিশকর্মীরাই নন। এদিন রাস্তায় নেমেছিলেন তাঁদের পরিবারের লোকরাও। ইন্ডিয়া গেট সংলগ্ন এলাকায় তাঁরা পোস্টার প্ল্যাকার্ড হাতে পুলিশ কর্মীদের মার খাওয়ার প্রতিবাদ জানান।

দিল্লির স্পেশাল পুলিশ কমিশনার সতীশ গোলচা বিক্ষোভস্থলে এসে জানান, তিসহাজারি কোর্টের ঘটনায় আহত প্রত্যেক পুলিশকর্মীকে ২৫০০০ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। এরপর যুগ্ম কমিশনার দেবেশ শ্রীবাস্তব-ও এসে বিক্ষোভকারীদের দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানালে পুলিশকর্মীরা বিক্ষোভ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেন।