সেনা দিবসের দিনে আরও একবার চিনা সেনাদের সঙ্গে পাকিস্তানকে  নিশানা করলেন ভারতীয় সেনা প্রধান এমএম নারাভানে। শুক্রবার তিনি দিল্লি ক্যানটনমেন্টের প্যারেড গ্রাউন্ডে সুর চড়িয়ে বলেন, ভারতীয় সেনাদের ধৈর্য পরীক্ষা করার ভুল না করাই শ্রেয়। পাশাপশি তিনি স্পষ্ট করে বলেন, সীমান্ত সমস্য়া সমাধানে ভারত প্রতিশ্রুতি বদ্ধ রয়েছে। তিনি আরও বলেন পূর্ব লাদাখ সেক্টরের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা এলায় একতরফাভাবে স্থিতাবস্থা বদল করতে চাইছে চিন। গত আট মাস ধরে ভারতীয় সেনাবাহিনী বীরত্বের সঙ্গে চিনা সেনাদের আটকে রেখেছে। দেশবাসীকে আশ্বস্ত করে তিনি বলেন, গ্যালওয়ানে ভারতীয়ে সেনাদের ত্যাগ ব্যার্থ হতে দেবে না তাঁদের সহকর্মীরা। 

সেনা প্রধান বলেন, লাদাখ সেক্টরে ফ্রন্টলাইনে দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনাদের মনোবল বর্তমানে তুঙ্গে রয়েছে। বেশ কিছু জায়গায় অতি উচ্চ এলাকায় অবস্থান করেছে ভারতীয় জওয়ানরা। বেশ কয়েকটি পাহাড় চূড়া দখলে থাকায় কৌশলগত কারণে এগিয়ে রয়েছে ভারতীয় জওয়ানরা। কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন ভারতীয় সেনারা যেসব পাহাড়চূড়া রক্ষা করছে তাঁদের মনোবল তার থেকেই বেশি। 

চিনের পাশাপাশি ভারতীয় সেনা প্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে পাকিস্তানকেও নিশানা করেন। তিনি বলেন ৩০০  থেকে ৪০০ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জঙ্গি পাক অধিকৃত কাশ্মীরে অপেক্ষা করে রয়েচে। তারা যেকোনও মূল্যে ভারতে ঢোকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সেনা জওয়ানরা প্রতিক্ষেত্রেই তাদের রুখে দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গত বছর থেকেই সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করা বাড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। যা থেকে স্পষ্ট হচ্ছে তাঁদের অসৎ উদ্দেশ্য। 

দিন কয়েক আগেই সেনা প্রধান অভিযোগ করেছিলেন চিনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে  পাকিস্তান  উত্তর সীমান্তের  পরিস্থিতিতে বদল আনতে চাইছে। কিন্তু সবরকম পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য তৈরি রয়েছে ভারতীয় সেনা জওয়ানরা। কিন্তু ভারত যেথেতু শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যা সমাধেনের পক্ষপাতি তাই এখনও পর্যন্ত সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে।