সোমবার সকালে নয়াদিল্লিতে সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতীয় প্রতিরক্ষা শিল্পের বিকাশের। দাবি করেন, অল্প দিনের মধ্যেই আর রুশ, মার্কিন বা ফরাসী অস্ত্রের দরকার পড়বে না। ভারতীয় অস্ত্রেই যুদ্ধ জিতবে বারতীয় সেনা। সেই দিনই আরও এক দারুণ সাফল্য পেল ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন। তাদের কুইক রিঅ্যাকশন সারফেস টু এয়ার মিসাইল সিস্টেমের পরীক্ষা সফল হল। ২০২১-এই এই ক্ষেপণাস্ত্র হাতে তুলে দেওয়া হবে সেনাবাহিনীর।

এদিন ওড়িশার উপকূলে চাঁদিপুর থেকে সকাল ১১টা ৪৫ মিনিটে দাগা হয় ক্ষেপণাস্ত্রটি। সম্পূর্ণ কনফিগারেশন-সহ ক্ষেপণাস্ত্রটি গিয়ে মাঝ আকাশে থাকা একটি লক্ষ্যবস্তুতে সফলভাবে আঘাত করে।

এদিনের পরীক্ষায় ক্ষেপণাস্ত্রটি সাফল্যের সঙ্গে তার সামর্থ্য দেখিয়েছে বলে দাবি করেছেন ডিআরডিও-এর বিজ্ঞানীরা। এই পরীক্ষা চলাকালীন ডিআর়িও-এর ডিরেক্টর জেনারেল (এমএসএস) এমএসআর প্রসাদ উপস্থিত ছিলেন। তিনি জানিয়েছেন আরও দু-একটি পরীক্ষার পর ২০২১ সালের মধ্যে এই অস্ত্রব্যবস্থা ভারতীয় সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হবে।

এদিন দিল্লিতে সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত বলেন, ভবিষ্যতের যুদ্ধে শত্রুদের বিরুদ্ধে জয় লাভ করতে ভারত সরাসরি যোগাযোগহীন যুদ্ধের দিকে এগোচ্ছে। কোয়ান্টাম প্রযুক্তি, সাইবার স্পেস এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।