পূর্ব লাদাখ সেক্টরে চিনের সঙ্গে চলমান বিবাদের মধ্যেই আরও একবার বড়সড় সাফল্যের মুখ দেখল ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন বা ডিআরডিও। প্রতিরক্ষা মন্ত্রেকর অধীনে থাকা এই সংস্থার তৈরি উন্নত প্রযুক্তির পিনাক রকেট লঞ্চার সিস্টেম থেকে  সফল উৎক্ষেপণ হয় ওড়িশার চাঁদিপুরের ইন্ডিগ্রেটেড টেস্ট রেঞ্জ থেকে। মোট ছটি রকেট পরপর ছোঁড়া হয়। সমস্ত পরীক্ষাগুলি সম্পূর্ণ করাই ছিল মিশনের অন্যতম লক্ষ্য। আর সেই পরীক্ষায় ডিআরডিও সফল হয়েছে বলেও জানিয়েছেন। সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে প্রত্যেকটি রকেটই নির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করতে সক্ষম হয়েছে। রকেটতে ব়্যাডার ও ইলেক্টো অপটিক্যাল ট্রাকিং সিস্টেমে পরীক্ষা করে কার্যক্ষমতা পরীক্ষা করা হয়। 

ডিআরডিও-র পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, পিনাক হল ভারতের ফ্রি ফ্লাইট অ্যাটিলারি রকেট সিস্টেম।   শিবের ধনুকের নাম থেকেই এই রকেট লঞ্চারের নামকরণ করা হয়ে পিনাক। ভারতীয় সেনা বাহিনীর কাছে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জাম। চিন ও পাকিস্তান উভয় দেশের মোকাবিলায় এগুলিকে ব্যবহার করা হতে পারে বলে সেনা সূত্রের খবর। ইতিমধ্যেই প্রয়োজনীয় স্থানে এগুলি মোতায়েন করা হয়েছে। মাত্র ৪৪ সেকেন্ডে ১২টি
 রকেট ছুঁড়তে সক্ষম এক লঞ্চারটি। এর অপারেশনাল রেঞ্জ ৮০০ কিলোমিটার। প্রায় ৪০ কিলোমিটার উঁচুতে উড়তে পারে এই লঞ্চার থেকে ছোঁড়া রকেট। কার্গিল যুদ্ধের সময় পিনাক রকেট লঞ্চার যথেষ্ট পরিমাণে সাহায্য করেছিল ভারতীয় সেনাবাহিনীকে।