স্থলপথ, জলপথ, আকাশপথে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পরাক্রম সারা বিশ্বে বন্দিত। এবার কিন্তু যুদ্ধটা আর এই তিন মাত্রায় আটকে রাখতে চাইছে না ভারত। যেভাবে দ্রুত বিজ্ঞান ও  প্রযুক্তির উন্নতি ঘটছে তাতে খুব তাড়াতাড়িই যুদ্ধ হতে পারে মহাকাশেও। আর সেই ভাবনা থেকেই আগামী বহস্পতি ও শুক্রবার দেশের প্রথম মহাকাশ যুদ্ধের মহড়া দেবে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তত্ত্বাবধানে হতে চলা এই মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে 'ইন্ডস্পেসএক্স'। তিন বাহিনীরই বাছাই করা সদস্যরা এই মহড়া অংশ নেবেন। গত ২৭ মার্চ, ভারত 'মিশন শক্তি'র মাধ্যমে একটি অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল দিয়ে ভারতের নষ্ট হয়ে যাওয়া একটি উপগ্রহ ধ্বংস করেছিল। তারপর থেকেই এই মহাকাশ যুদ্ধের মহড়ার ভাবনা চলছিল বলে জানা গিয়েছে।

মহাকাশ চর্চায় বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলির অন্যতম ভারত। তবে এতদিন পর্যন্ত তার সবটাই আবদ্ধ ছিল অসামরিক চর্চার মধ্যে। কিন্তু প্রতিবেশী দেশ চিন ক্রমেই মহাকাশ সমর বিষয়ে উন্নতিু করে চলেছে। তাদের হাতে ইতিমধ্যে উপগ্রহ ধ্বংস করার মতো একাধীক ক্ষেপনাস্ত্র, ধ্বংসাত্মক উপগ্রহ, লেজার এবং ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক  পাল্স অস্ত্রের মতো মহাকাশের যুদ্ধাস্ত্র রয়েছে।

এই অবস্থায় পিছিয়ে থাকতে চাইছে না ভারতও। প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত এক পদস্থ আধিকারিক জানিয়েছেন, 'অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল পরীক্ষার সময় প্রদানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন ভারতকে আরও শক্তিশালী ও নিরাপদ করতে এবং শান্তি ও সম্প্রীতি বাড়াতেই এই পরীক্ষা করা হয়েছে। সেই সুর ধরেই মহাকাশ যুদ্ধের ক্ষেত্রে কী কী ধরণের হুমকির মোকাবিলা করতে হতে পারে, কোথায় পিছিয়ে আছে ভারত সেইসব যাচাই করতে এই মহড়ার আয়োজন করা হচ্ছে।'