সোনা পাচারকাণ্ডে আগেই জড়িয়েছে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ের কার্যালয়ের নাম। ভাবমূর্তী রক্ষার জন্য তড়িঘড়ি তিনি বদলি করেছেন তাঁর ব্যক্তিগত সচিবকে। যাঁর মাধ্যেমে সেনা পাচারে অভিযুক্ত স্বপ্না সুরেশের আবাধ যাতায়াত ছিল মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ে। প্রশাসনের বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানেও স্বপ্না সুরেশ ও পিনারাই বিয়জনকে এক ফ্রেমে দেখতে পাওয়া গিয়েছে। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই সরগরম কেরলের রাজনীতি। 


তবে তারই মধ্যে সামনে এসেছে আরও একটি ছবি। যেখানে দেখা গেছে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিরানাই বিজয়ের মেয়ের বিয়েছে উপস্থিত ছিলেন স্বপ্না সুরেশ। নবদম্পতির সঙ্গে একই ফ্রেমে  তাঁকে দেখতে পাওয়া গেছে।  আর সেই ফ্রেমেই ক্যামেরা বন্দি হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন ও তাঁর স্ত্রী কমলা। মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ের পাশেই  হাসি মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছেন স্বপ্না। সেই গ্রুপ ফোটেতে রয়েছেন কেরলেরই আরএক মন্ত্রী ইপি জয়রাজন। গত মাসেই বিয়ে হয়েছিল কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ের। 

কিন্তু আসল তথ্য বলছে অন্যকথা। একই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন কেরলের মন্ত্রী ইপি জয়রাজন। তিনি উপস্থিত ছিলেন ঘরোয়া বিবাহের আসরে। তাঁর শেয়ার করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর কন্যা বীনার পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন জয়রাজনের স্ত্রী পিকে ইন্দিরা। 

বাহুবলী বিকাশ দুবেব মাসিক আয় দেখে মাথা ঘুরে গেছে তদন্তকারীদের, রোজগারের উৎস আর মোহনা এখনও অস্পষ্ট ...

'সত্যকে পরাজিত করা যায় না', দলের ও প্রশাসনের সমস্ত পদ খুইয়ে বললেন 'অভিমানী' শচীন পাইলট ...

একটি সূত্র বলছে জয়রাজনের স্ত্রী পিকে ইন্দিরার মুখের ওপরই সুরাপ ইম্পোজ করে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে সোনা পাচারের  অভিযুক্ত স্বপ্না সুরেশের মুখ। একটি সূত্র জানাচ্ছে কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ের বিয়েতে আমন্ত্রিত ছিলে না স্বাপ্ন সুরেশ। এবার দেখেনিন এটাই আসল ছবি।


আবরআমিরসাহী থেকে প্রায় ৩০ কিলো সোনা অবৈধভাবে আমদানি করার চেষ্টা করেছিল স্বপ্না ও তার দলবল। কিন্তু তাদের প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। এনআইসি সোনা পাচারের অভিযোগে ইতিমধ্যেই ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে। 

করোনা মোকাবিলায় এবার ভারতে চর্মরোগের ওষুধ হাতিয়ার, বায়োকনের ইটোলিজুমাব জীবনদায়ী বলে দাবি ..