মধ্যপ্রদেশের দাতিয়া থেকে ছেলেকে খুনের অভিযোগে একই  পরিবারের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, মদ্যপ অবস্থায় ছেলে  একাধিকবার তার মা, বোন ও বৌদিকে ধর্ষণ করেছে। বাধ্য হয়েই ওই যুবককে খুন করা হয়েছে বলে পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে। 

প্রকাশ্যে শাহরুখ কন্যার প্রথম শর্টফিল্ম, বলিউড থেকে হলিউড, দুইয়ের জন্যই তৈরি সুহানা

দাতিয়ার সাব ডিভিশনাল পুলিশ আধিকারিক গীতা ভরদ্বাজ জানিয়েছেন, ১২ নভেম্বর গোপালদাস পাহাড় থেকে এক যুবকের মৃতদেহ পাওয়া যায়।  মৃতদেহের শরীরের মৃত্যুর আগে লড়াই করার চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে। পুলিশি জেরায় পরিবারের সদস্যরা যুবককে খুন করার কথা স্বীকার করেছেন।  এক বিবৃতিতে গীতা ভরদ্বাজ জানিয়েছেন, যুবতটি নিয়মিত মদ খেতেন। পরিবারের সদস্যরা যুবকের মদ্যপ অবস্থায় নানা ধরনের কুকীর্তির জন্য নাজেহাল হয়ে উঠেছিল পরিবার। পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, মদ্যপ অবস্থায় বাড়িতে ফিরলে কখনও মা, কখনও বোন তো কখনও ছোট ভাইরের বউকে ধর্ষণ করতেন তিনি। 

ট্রাফিক সিগন্যালে এমবিএ ছাত্রীর ডান্স মুভ, ইন্দোরের এই খবর এখন ভাইরাল

পুলিশি জেরায় যুবকের বাবা জানান, '১১ নভেম্বর মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফেরেন।  সেই সময় ওই যুবক তাঁর ছোট ভাইয়ের বউকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।  এর আগে বহুবার সে ছোট ভাইয়ের বইয়ের বউকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।  প্রতিদিন  এই অত্যাচার আমাদের সহ্য হচ্ছিল না। আমরা তাকে খুন করি। দেহটাকে গোপালদাস পাহাড়ে ফেলে আসি।' 

পুলিশ যুবকের বাবা, মা, ছোট ভাই ও ভাইয়ের বউকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানা গিয়েছে। সোমবার অভিযুক্তদের আদালতে তোলা হলে  বিচার বিভাগীয় নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।