প্রয়াত অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা তরুণ গগৈ। সোমবার বিকেল ৫টা ৩৪ মিনিটে গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোশ্যাল মিডিয়া বার্তা দিয়ে মোদী জানিয়েছেন, তরুণ গগৈ ছিলেন জনপ্রিয় নেতা। প্রবীণ প্রশাসক। অসমের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় রাজনীতিতেই তিনি একটি বিশেষ জায়গা করে নিয়েছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে পরিবারের প্রতিও সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

 গত ২৫ অগাস্ট করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। তারপর প্রায় দুমাস তাঁর চিকিৎসা চলে তাঁর। গত ২৫ অক্টোবর হাসপাতাল থেকে ছাড়াপান তিনি। সেইসময় থেকেই করোনাপরবর্তী রোগের বেশ কিছু জটিলতা দেখা দেয়। গত ২ নভেম্বর ফের তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপর থেকেই ভেন্টিলেশনের সাপোর্ট রাখা হয়। কিন্তু সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে শেষ নিঃশ্বার ত্যাগ করেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ। 

সাংসদদের জন্য ঝাঁচকচকে আবাসনের উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর, ছবির সঙ্গে রইল থুঁটিনাটি তথ্য ...

প্রতিবেশী হিসেবে চিন সবসময় ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলে, তিব্বতকেই স্বীকৃতি অরুণাচলের মুখ্যমন্ত্রীর ...

তরুণ গগৈয়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। তিনি বলেন দেশ এক প্রবীণ রাজনীতিবিদকে হারাল। তরুণ গগৈ একজন দক্ষ প্রকাশক ছিলেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন তাঁর কাজ অসমকে অনেক সমৃদ্ধ করেছে। 

তরুণ গগৈকে শ্রদ্ধ জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, তিন বারের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন গগৈ। দক্ষ প্রশাসক হিসেবেও তাঁকে চিহ্নিত করেন তিনি।