গৃহবন্দি করা হল অন্ধ্রপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুকে। একই সঙ্গে গৃহবন্দি করা হয়েছে তেলুগু দেশম পার্টির অন্যান্য বহু নেতাকেও। টিডিপি-র আত্মকুর অভিযান রুখতেই এই পদক্ষেপ করেছে ওয়াইএসআর কংগ্রেস সরকার। জগন সরকারের এই পদক্ষেপকে মানবাধিকার লঙ্ঘনের সঙ্গে তুলনা করে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। 

শাসক দল ওয়াইএসআর কংগ্রেসের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক হিংসা ছড়ানোর অভিযোগ তুলে  এবং গণতন্ত্র রক্ষার দাবিতে আত্মাকুর অভিযানের ডাক দিয়েছিল টিডিপি। বুধবারই সেই অভিযান হওয়ার কথা ছিল। ভোটে জিতে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ওয়াইএসআর কংগ্রেসরে পক্ষ থেকে টিডিপি সমর্থকদের উপরে হামলা চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ। রাজনৈতিক হিংসার ঘটনায় এখনও তাদের আটজন কর্মী খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ টিডিপি-র। বিশেষত পালানাড়ু অঞ্চলে হিংসার ঘটনা সবথেকে বেশি বলে অভিযোগ করেছে টিডিপি। 

আত্মাকুর অভিযানে ঘরছাড়া এবং আহত দলীয় কর্মীদের দেখতে ত্রাণ শিবিরে যাওয়ার কথা ছিল চন্দ্রবাবু নাইডু-সহ দলীয় নেতাদের। সেই অভিযান আটকাতেই মঙ্গলবার মাঝরাত থেকে চন্দ্রবাবু নাইডুর বাড়ির বাইরে প্রচুর সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করে তাঁকে এবং তাঁর ছেলে নাড়া লোকেশকে গৃহবন্দি করা হয়। একই সঙ্গে টিডিপি-র প্রাক্তন মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদ এমনকী জেলা সভাপতিদের মতো নেতাদেরও গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে বলে খবর। 
এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই চন্দ্রবাবু নাইডুর বাড়িতে ভিড় জমাতে শুরু করেন দলীয় সমর্থকরা। যদিও তাদেরকে বাধা দিয়ে আটক করে পুলিশ। গৃহবন্দি হওয়ার প্রতিবাদে বারো ঘণ্টার অনশনে বসেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। বাড়ি থেকে জোর করে তিনি বেরনোর চেষ্টা করলে মূল ফটকে তালা দিয়ে দেয় পুলিশ। 

চন্দ্রবাবু নাইডু বলেন, 'রাজ্য সরকার মানবাধিকার এবং মৌলিক অধিকার লঙ্ঘন করছে। আমি সরকারকে সতর্ক করছি, পুলিশকেও সতর্ক করছি। এই ধরনের রাজনীতি করা যায় না। গ্রেফতার করে আমাদের দমিয়ে রাখা যাবে না। যখন, যেখানে সুযোগ পাব, আত্মাকুর অভিযান শুরু করব। পুলিশের অবশ্য পাল্টা দাবি, অনুমতি না নিয়ে অভিযানে যাওয়ার চেষ্টা করার জন্যই টিডিপি নেতাদের গৃহবন্দি করা হয়েছে।