বুধবার আরও একটু ছাড় দেওয়া হল দেশিয় বিমান পরিবহণ সংস্থাগুলিকে। এতদিন কোভিড পূর্ববর্তী সক্ষমতার মাত্র ৬০ শতাংশ বিমান চালানোর অনুমতি ছিল তাঁদেরষ বুধবার ভারতের অসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রক তা বাড়িয়ে ৭০ শতাংশ করার অনুমতি দিয়েছে বলে জানিয়েন অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি।

গত মার্চ মাসের শেষে লকডাউনের কারণে পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল বিমান চলাচল। দুই মাস পুরোপুরি বন্ধ থাকার পরে ২৫ মে থেকে অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচল ফের শুরু করা হয়েছিল। তবে খুবই অল্প সংখ্যা। প্রাক-কোভিড সক্ষমতার মাত্র ৩৩ শতাংশ বিমান চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। সরকার জানিয়েছিল, অবস্থার কোভিড পরিস্থিতির উন্নতির উপর নির্ভর করে অভ্যন্তরীন বিমান পরিবহণের পরিমাণ বাড়ানো হবে।

তারপর আরও দুবার এই নির্দেশ পরিবর্তন করা হয়েছে। ২৬ জুন থেকে সক্ষমতার ৪৫ শতাংশ এবং ২ সেপ্টেম্বর থেকে অভ্যন্তরীন বিমান চলাচল আরও বাড়িয়ে ৬০ শতাংশ করা হয়েছিল। এদিন তা আরও একবার বাড়িয়ে ৭০ শতংশ করা হল।

হরদীপ সিং পুরি জানিয়েছেন, ২৫ মে অভ্যন্তরীণ বিমান পরিবহন যখন ফের শুরু করা হযেছিল সেই সময় বিমানের যাত্রী ছিল মাত্র ৩০,০০০। ৮ নভেম্বর তা ২.০৬ লক্ষে পৌঁছেছে। বিমান ভ্রমণের জন্য যাত্রীদের চাহিদা এবং দেশিয় বিমান পরিবহণের বর্তমান অবস্থা পর্যালোচনা করেই অভ্যন্তরীন বিমানের সংখ্যা আরও বাড়ানো হল বলে জানান তিনি। উত্সব মরসুমের কারণে যাত্রী চাহিদা আরও বাড়বে বলে আশা করছে মন্ত্রক।