তাঁর সরকারের ব্যবসা জগতে থাকার কোনও মনোবাঞ্ছা নেই। চারটি কৌশলগত খাত ছাড়া অন্য সকল রাষ্ট্রায়ত্ব ক্ষেত্রকে বেসরকারীকরণে বদ্ধপরিকর মোদী প্রশাসন। বুধবার, বিনিয়োগ ও জন সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগ (DIPAM) আয়োজিত, বেসরকারীকরণ বিষয়ক এক ওয়েবিনারে এমনটাই জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাশাপাশি তিনি এই বছরের কেন্দ্রীয় বাজেটের প্রশংসা করে জানান, এই বাজেট ভারতকে একটি উচ্চ অর্থনৈতিক বৃদ্ধির পথে নিয়ে যাওয়ার সুস্পষ্ট রোডম্যাপ করে দিয়েছে।

এদিনের ওয়েবিনারে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, উদ্যোগ ও ব্যবসায় সহায়তা করা কেন্দ্রীয় সরকারের কর্তব্য। তবে সরকারের হাতে কোনও ব্যবসার মালিকানা থাকা এবং উদ্যোগ পরিচালনা করা মোটেই জরুরি নয়। তিনি আরও বলেন, বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি হ'ল সরকারি উদ্যোগগুলিকে আর্থিকভাবে উন্নীত করা অথবা সেগুলির আধুনিকীকরণ করা। আর এই ক্ষেত্রে তাঁদের মন্ত্র হল 'ব্যবসাক্ষেত্রে থাকার কোনও লক্ষ্য নেই'।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে সরকারি শিল্পক্ষেত্রগুলি আর্থিক সহায়তা দরকার, সেগুলি দেশের অর্থনীতির উপর অনাবশ্যক চাপ সৃষ্টি করে। শুধুমাত্র উত্তরাধিকার বলেই এই সরকারী শিল্পোদ্যোগগুলি সরকারে পরিচালনা করে যাওয়া উচিত নয়, বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তিনি আরও জানান, এই পিএসইউগুলির মধ্য়ে বেশ কয়েকটিই লোকসানে চলছে। সেগুলি করদাতাদের অর্থ-সহায়তা ছাড়া চালানো যায় না। এছাড়া সরকারের অনেক স্বল্পব্যবহৃত ও অব্যবহৃত সম্পদ রয়েছে। এইরকম ১০০টি সম্পদের অর্থায়ন করা হবে, অর্থাৎ বিক্রি করে দেওয়া হবে। এইভাবে সরকারি কোষাগারে আড়াই লক্ষ কোটি টাকা জমা হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি।