শনিবার সকালে হরিয়ানার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী অনিল ভিজ টুইট করে জানিয়েছেন তাঁর করোনা পরীক্ষার ফল ইতিবাচক এসেছে। অথচ ৬৭ বছর বয়সী এই মন্ত্রীকে দুই সপ্তাহ আগেই ভারত বায়োটেক সংস্থার তৈরি সম্ভাব্য কোভিড ভ্য়াকসিনের ডোজ দেওয়া হয়েছিল। তারপরও তিনি সংক্রমিত হওয়ায় ভ্য়াকসিনের কার্যকারিতা সংশয় তৈরি হয়েছে। অনেকের মনেই প্রশ্ন জেগেছে, তবে কি টিকা কাজ করছে না? কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যান মন্ত্রক কিন্তু তা মানছে না।

এদিন সকালে টুইট করে অনিল ভিজ জানান, তিনি করোনা পজিটিভ বলে চিহ্নিত হয়েছেন। আম্বালা ক্যান্টনমেন্টের সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে। গত কয়েকদিনে যাঁরা মন্ত্রী ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাঁদের সবাইকে করোনা পরীক্ষা করার জন্য পরামর্শও দেন অনিল। কিন্তু, এর আগে গত ২০ নভেম্বরই হরিয়ানার স্বরাষ্ট্র তথা স্বাস্থ্য মন্ত্রীকে, ভারত বায়োটেক সংস্থা ও আইসিএমআর-এর তৈরি 'কোভাক্সিন' টিকা দেওয়া হয়েছিল। 'কোভাক্সিন'-এর তৃতীয় পর্বের পরীক্ষার অংশ টিকাটির প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছিল মন্ত্রীকে।

আরও পড়ুন - রোহিঙ্গাদের 'ভাসমান কারাগার'এ পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ, খাদের মুখে মানবাধিকার, দেখুন ছবিতে ছবিতে

আরও পড়ুন - 'কৃত্রিম সূর্য' তৈরি করে ফেলল চিন, তাপমাত্রা আসল সূর্যের থেকেও ১০ গুণ বেশি

আরও পড়ুন - ইতিহাসে গীতাঞ্জলি - টাইম ম্যাগাজিনের প্রথম 'কিড অব দ্য ইয়ার'কে চিনে নিন ছবিতে ছবিতে

অনিল ভিজ আক্রান্ত হওয়ায় খবর জানাজানি হতেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, এতে করে টিকাটি কাজ করছে না, এমনটা ধরে নেওয়ার কারণ নেই। কারণ, ভারত বায়োটেক-এর তৈরি এই ভ্যাকসিন দুই-ডোজ'এর। আগের ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলির উপর ভিত্তি করে ২৮ দিনের ব্যবধানে দুটি ডোজ দেওয়া হয়। দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার অন্তত ১৪ দিন পর থেকে ভ্যাকসিনটি শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি করা শুরু করে। কোভাক্সিনের দু ডোজ না পেলে তা ভাইরাসটির বিরুদ্ধে কার্যকর হবে না। হরিয়ানার স্বরাষ্ট্র তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী যেহেতু মাত্র একটিই ডোজ গ্রহণ করেছেন, তাই ভাইরাসটির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা দিতে পারেনি কোভ্যাক্সিন।