হাথরস ধর্ষণকাণ্ড নিয়ে বিরোধীদের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন বিরোধীরা রাজনৈতিক লাভের জন্য রাজ্যে দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করছে। আগামী ৩ নভেম্বর উত্তর প্রদেশে উপনির্বাচন। আর সেই নির্বাচনে জয় পেতেই বিরোধীরা এই প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন যোগী আদিত্যনাথ। এই ভাষাতেই উপনির্বাচনের প্রচার শুরু করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন রাজ্য সরকারকে হেনস্থা করতে বিরোধীরা প্রতিদিনই নতুন নতুন ষড়যন্ত্র করছে। তাই এই বিষয়টি থেকে সবধান হওয়া জরুরি। 

পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় হিন্দিতে একটি ট্যুইট করেন যোগী আদিত্যনাথ। সেখানে তিনি বলেন যারা উন্নয়ন চায়না তারাই জাতিগত ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা উস্কে দিতে চাইছে। আর সেই দাঙ্গার আগুনে রাজনৈতিক রুটি সেঁকাই তাদের মূল উদ্দেশ্য। রাজ্যের উন্নয়ন প্রক্রিয়া থামাতে তারা এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন বলেও অভিযোগ করেন যোগী আদিত্যনাথ। পাশাপাশি রাজ্যের মানুষকে ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সতর্ক থাকারও আহ্বান জানিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। 


করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল বিজেপি বিধায়ক ও মন্ত্রী চেতন চৌহানের। আর সেই কারণে খালি হয়ে গেছে নওগাওয়ান সাদাত আসনটি। আগামী ৩ নভেম্বর সেই আসনেই উপনির্বাচন। তার আগেই হাথরসের ঘটনা, যা নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশের মানুষকে। যা নিয়ে রীতিমত সরব হয়েছে বিরোধীরা। কংগ্রেসের পর হাথরসকাণ্ডে সরব হয়েছেন মায়াবতী আর অখিলেশ যাদবও। হাথরসকাণ্ডের প্রতিবাদে সরব হয়েছে ভীম আর্মির প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদও। যা নিয়ে বর্তমান পরিস্থিতিতে উত্তর প্রদেশে কিছুটা হলেও ব্যাকফুটে বিজেপি। আর তাই ড্যামেড কন্ট্রোলে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।একটি সূত্রের খবর আসন্ন নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে  বিজেপি নেতা কর্মীদের রাজ্যের উন্নয়েনের কথা তুলে ধরতে নির্দেশ দিয়েছেন।