দিনের ব্যস্ততম সময়। রাস্তায় লোকজনেক সংখ্যাও কিছু কম নয়, কিন্তু এরই মাঝে ঘটে গেল এক অদ্ভুত ঘটনা। আচমকাই রাস্তার মাঝখানে বসে পুলিশ সুপারের পা ধরে কাঁদতে শুরু করলেন কাশী এলাকার বিজেপির মন্ত্রী অনিল সিং। ঘটনাটি দেখা মাত্রই হতবাক হয়ে গিয়েছেন পথচলতি মানুষ। 

অবিশ্বাস্য এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মীরজাপুর জেলায়। ভরা রাস্তায় হাঁটু মুড়ে বসে পুলিশের পা জড়িয়ে কাঁদতে কাঁদতে তিনি বলেন, তাঁর সমস্ত মান-সম্মান হারিয়ে গিয়েছে। নিজের সরকারের জমানায় এমন অপমান তিনি সহ্য করতে পারছেন না। কিন্তু কী এমন ঘটল যে এমন ঘটনা ঘটল।

 ঘটনাটি ঘটে কোতোয়ালি এলাকার নিবি-র কাছে। সেখানে কিছু রপুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল যাঁরা সেখানকার যানবাহনগুলির তল্লাসি চালাচ্ছিল। সেইসময়ে কাশী এলাকার মন্ত্রী তথা প্রাক্তন জেলা প্রধান অনিল সিং রামসকালে তাঁর বাড়ি থেকে ফিরছিলেন। আর ঠিক তখনই পুলিশ তাঁর গাড়ি আটকায়। তাঁর কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় বৃষ্টির কারণে সেসব বাড়িতেই ফেলে এসেছেন বলে জানান তিনি। আর এরপরই পুলিশ যখন রসিদ কাটেন তখনই তিনি ও তাঁর ঘনিষ্ঠরা রাস্তায় ধর্নায় বসে যান। এবং খবর পেয়ে পুলিশ সুপার ঘটনাস্থলে গেলে হাঁটু মুড়ে বসে তাঁর পা ধরে কাঁদতে শুরু করেন তিনি। তিনি আরও বলেন যে, তিনি একজন সাধারণ মানুষ, তিনি চাইলে তাঁকে গুলিও করতে পারেন। পরে তাঁকে অনেক বোঝানোর পর তাঁকে শান্ত করা গিয়েছে।