ঐতিহাসিক ঘটনা, সুপ্রিম কোর্টের শুনানির লাইভ স্ট্রিমিং দেখুন বাড়িতে বসেই, জেনে নিন কীভাবে দেখবেন

| Sep 27 2022, 03:06 PM IST

ঐতিহাসিক ঘটনা, সুপ্রিম কোর্টের শুনানির লাইভ স্ট্রিমিং দেখুন বাড়িতে বসেই, জেনে নিন কীভাবে দেখবেন

সংক্ষিপ্ত


সাংবিধানিক আইনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির শুনানির জন্য শীর্ষ আদালতে তিনটি সাংবিধানিক বেঞ্চ রয়েছে। আর সেই তিনটি বেঞ্চের শুনানির এদিন লাইভ স্ট্রিমিং করা হয়। 

ঐতিহাসিক ঘটনার সাক্ষী সুপ্রিম কোর্ট। মঙ্গলবার প্রথমবার সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চের শুনানির সময় লাইভ স্ট্রিমিং করা হয়। সাংবিধানিক আইনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির শুনানির জন্য শীর্ষ আদালতে তিনটি সাংবিধানিক বেঞ্চ রয়েছে। আর সেই তিনটি বেঞ্চের শুনানির এদিন লাইভ স্ট্রিমিং করা হয়। 

যে তিনটি মামলার লাইভ স্ট্রিমিং হয় সেগুলি হল,  অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল ধারা (EWS)কোটা মামলার শুনানি। এটি ১০৩তম সাংবিধানিক সংশোধনীকে চ্যালেঞ্জ করে। এই মামলার শুনানি হয় প্রধানবিচারপতি ইউইউ ললিতের নেতৃত্বাধীন সংবিধানিক বেঞ্চে। 
দ্বিতীয় মাামলার শুনানি হয় বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচুড়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে। মামলাটিও অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই বেঞ্চে শুনানি হয় মহারাষ্ট্রের শিব সেনার প্রকৃত দাবিদার কারা। শিবসেনা বনাম শিবসেনা মামলার শুনানি হয়। শিবসেনার প্রকৃত  কতৃত্ব নিয়ে বিবাদ রয়েছে একনাথ শিন্ডে ও উদ্ধব ঠাকরের মধ্যে। 
তৃতীয় মামলার শুনানি হয় বিচারপতি এসকে কাউলের সভাপতিত্ব। সর্বভারতীয় বার পরীক্ষার বৈধতা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে শুনানি। 

Subscribe to get breaking news alerts

আজ থেকে ঠিক চার বছর আগে ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে ভারতের তৎকালীন প্রধানবিচারপতি সুপ্রিম কোর্টের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির লাইভ স্ট্রিমিংএর যুগান্তকারী রায় দিয়েছিলেন । বলেছিবেন 'সূর্যের আলো হয় সেরা জীবণুনাশক।' চলতি বছর ২০ সেপ্টেম্বর ভারতের প্রধানবিচারপতি ইউইউ ললিক আদালতের বৈঠক করার সময় ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে সুপ্রিম কোর্টের লাইভ স্ট্রিমিং শুরু হে বলে ঘোষণা করেছিলেন। আধিকারিকরা জানিয়েছেন স্বাভাবিক পদ্ধতি অনুসারে লাইভ স্ট্রিমিং ৩০ সেকেন্ড পিছিয়ে দেওযা হয়। 

সুপ্রীম কোর্ট ইউটিউবের মাধ্যমে লাইভ-স্ট্রিম কার্যক্রম করে এবং পরে তাদের সার্ভারে হোস্ট করতে পারে, সূত্র জানিয়েছে। লোকেরা কোন ঝামেলা ছাড়াই তাদের সেল ফোন, ল্যাপটপ এবং কম্পিউটারে কার্যপ্রণালী অ্যাক্সেস করতে সক্ষম হবে।

সুপ্রীম কোর্ট ইউটিউবের মাধ্যমে লাইভ-স্ট্রিম কার্যক্রম চালাতে পারে এবং পরে তাদের সার্ভারে হোস্ট করতে পারে, সূত্র জানিয়েছে। লোকেরা কোন ঝামেলা ছাড়াই তাদের সেল ফোন, ল্যাপটপ এবং কম্পিউটারে কার্যপ্রণালী অ্যাক্সেস করতে সক্ষম হবে।