শুক্রবার ভোররাতে হায়দরাবাদের গণধর্ষণ ও হত্যার ঘটনার অভিযুক্ত চারজন পুলিশি সংঘর্ষে খতম হয়েছে। সাইবারাবাদের পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার পুনর্নির্মাণের জন্য এবং প্রমাণ সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল অভিযুক্তদের। এরপর পুলিশ নায়কের সম্মান পাচ্ছে। কিন্তু, আদৌ কি তারা সঠিক চারজনকে ধরেছিল, যাদের মারা হল তারাই কি সত্যিকারের অপরাধী? উঠছে প্রশ্ন।

এদিন একদিকে পুলিশের এনকাউন্টার যেমন দেশের অধিকাংশ মানুষের প্রশংসা পাচ্ছে, তেমনই অল্প হলেও একটা অংশ থেকে পুলিশের এই ভূমিকা নিয়ে প্রশ্নও উঠছে। বিশেষ করে সুপ্রিম কোর্টের বিশিষ্ট মহিলা আইনজীবী করুণা নন্দী গুরুতর প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন। এদিন তিনি টুইট করে বলেন, 'এখন আর জানার উপায় থাকল না, পুলিশ দ্রুত কাজ করা দেখাতে ভুল লোককে ধরে এনকাউন্টার করে দিল কি না। হয়তো আসল অপরাধীরা এখনও বাইরে ঘুরে বেড়াচ্ছে, আরও মহিলাকে ধর্ষণ ও হত্যা করতে।' এই প্রশ্নের সঙ্গে সঙ্গে তিনি আরও বেশ কিছু গুরুতর বিষয়ের উত্থাপন করেছেন আরও বেশ কয়েকটি টুইটে।

ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যানমন্ত্রী তথা বিজেপি সাংসদ মানেকা গান্ধীও। লোকসভা চত্ত্বরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, 'যা ঘটেছে, তা এই দেশের জন্য অত্যন্ত ভয়ঙ্কর ঘটনা। আপনি আইন হাতে নিতে পারেন না। অভিযুক্তদের আদালতে বিচার করেই ফাঁসি দেওয়া উচিত ছিল।'