চার দিনের সফরে বাংলাদেশ গেলেন এয়ার চিফ মার্শাল আরকেএস ভাদৌরিয়া। বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর প্রধান মার্শাল মসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত-এর আমন্ত্রণে প্রতিবেশি দেশের সর্বোচ্চ সামরিক নেতৃত্বের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন ভারতীয় বায়ুসেনা প্রধান। সেইসঙ্গে, সফরকালে তিনি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর মূল ঘাঁটিগুলিও পরিদর্শন করবেন। এছাড়া, ঢাকা সেনানিবাসের শিখা অনির্বাণ স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের শহিদ হওয়া বাংলাদেশি সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের শ্রদ্ধা জানাবেন।

সোমবার, বায়ুসেনার পক্ষ থেকে এক সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এয়ার চিফ মার্শাল ভাদৌরিয়ার এই সফরের সময়, দুই পক্ষের স্বার্থ জড়িয়ে রয়েছে, এমন ক্ষেত্রগুলির অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হবে। কীভাবে, পারস্পরিক সামরিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখা এবং আরও বৃদ্ধি করা যায়, সেই বিষয়েও আলোচনা হবে। দুই দেশের বাহিনীই এই বছর একাত্তরের যুদ্ধ জয়ের পঞ্চাশ বছর উদযাপন করছে। এই বিষয়কে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের বিমানবাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান পেশাদার সম্পর্ক এবং বন্ধুত্বের বন্ধন আরও বাড়িয়ে তুলবে, বলে আশা করছে নয়াদিল্লি।

বাংলাদেশ এয়ারফোর্সের প্রধান ২০২১ সালের চিফস অব এয়ার স্টাফ কনক্লেভ-এ তার দেশের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য  বেঙ্গালুরুতে এসেছিলেন। চলতি মাসের গোড়ার দিকে ২০২১ সালের এয়ারো ইন্ডিয়াতেও বাংলাদেশি একটি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিতে বেঙ্গালুরু এসেছিলেন তিনি। সেই সময়ই ভারতীয় বায়ুসেনা প্রধানকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন মার্শাল মসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত। প্রসঙ্গত, বায়ুসেনা প্রধানের পর বাংলাদেশ সফরে যাওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীরও। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ তম বর্ষ উদযাপনের তথা ভারত-বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের মধ্যে ৫০ বছর উপলক্ষ্যে  আগামী ২৬-২৭ মার্চ মোদী বাংলাদেশ সফর করবেন বলে জানা গিয়েছে।