ক-দিন আগে ৬৮ জন ছাত্রীর পোশাক খুলে ঋতুচক্র হয়েছে কিনা তা দেখার কুখ্য়াত স্মৃতি এখনও মোছেনি। এর মধ্য়েই আবার শিরোনামে গুজরাত। প্রসঙ্গও সেই এক-- মেয়েদের ঋতুচক্র।

স্বামী নারায়ণ ভুজ মন্দিরের সাধু কৃষ্ণস্বরূপ দাসজি এবার মহিলাদের মাসিক নিয়ে আরও একধাপ এগিয়ে মন্তব্য করলেন। তাঁর কথায়, ঋতুচক্র চলাকালীন কোনও মহিলা  যদি রান্না করেন, তাহলে তিনি পরের জন্মে কুত্তী বা মেয়ে কুকুর হয়ে জন্মাবেন! আর ওই দিনগুলোতে তাঁর হাতের তৈরি রান্না খেলে পুরুষরা ষাঁড় হয়ে জন্মাবেন!

জানা গিয়েছে, এহেন অভূতপূর্ব মন্তব্যের নেপথ্যশিল্পী এই কৃষ্ণস্বরূপ দাসজিও নাকি গুজরাতের সেই স্বামী নারায়ণ মন্দির কমিটির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।ওই মন্দির কমিটির তত্ত্বাবধানে চলা স্কুলই দিনকয়েক আগে ৬৮ জন মেয়েকে নগ্ন করে পরীক্ষা করেছিল তাদের ঋতুচক্র চলছে কিনা তা দেখতে। যা গোটা কার্যত গোটা দেশের মাথা হেঁট করে দিয়েছিল।

ভুজে একটি ধর্মীয় সভায় কাউনসেলিং করার সময়ে ওই সাধু এহেন মন্তব্য় করেন বলে জানা গিয়েছে।  তাঁর কথায়, "আপনারা কী মনে করবেন তা জানি না। তবে এটাই শাস্ত্রের নিয়ম।"

এদিকে এই মন্তব্য়ে প্রশ্ন উঠেছে,  মেয়েদের ঋতুচক্র নিয়ে এদের এত কেন সমস্য়া তা বোধগম্য় নয়। মাসের মধ্য়ে যে-কটা দিন এই ঋতুচক্র চলে, সেই সময়ে কি ঘরের কাজ তাহলে বন্ধ থাকবে?  মহিলারা কেউ কেউ বলছেন, তাহলে তো ভালই হয়। ওই দিনগুলোতে পুরুষরাই সামাল সামলাবে ঘরগেরস্থালির কাজ।