করে দেখলেন নরেন্দ্র মোদী। বিদেশি অ্যাকাউন্টে থাকা কালো ধন দেশে ফেরাতে না পারলেও সুইস ব্যাঙ্কে কোন কোনও ভারতীয়ের অ্যাকাউন্ট আছে তার প্রাথমিক তালিকা পৌঁছে গেল ভারতে। এর আগেই সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ভারতের অটোমেটিক তথ্য আদান-প্রদানের চুক্তি হয়েছিল। সেই অনুযায়ী প্রথম তালিকা এসে গেল। কালো ধনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে এই ঘটনা এক গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক হিসেবে চিহ্নিত হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সুইজারল্যান্ডের ফেডারাল ট্যাক্স অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফটিএ)-এর এক মুখপাত্র সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, মোট ৭৫ টি দেশের সঙ্গে তাঁদের আর্থিক অ্যাকাউন্ট বিষয়ে তথ্য আদান-প্রদানের চুক্তি রয়েছে। তার মধ্যে ভারত অন্যতম। এইওআই নির্ধারিত কাছঠামো মেনেই এই তথ্য পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।  

এই প্রথম ভারত এইওআই কাঠামোর আওতায় সুইজারল্যান্ডের কাছ থেকে অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত বিশদ তথ্য পেল। এর মধ্যে শুধুমাত্র হর্তমানে চালু থাকা অ্যাকাউন্টগুলিই আছে তা নয়। ২০১৮ সালে যারা সুইস ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছেন তাদের তথ্যও রয়েছে।

স্বাভাবিকভাবেই এই তালিকায় কাদের কাদের নাম রয়েছে, তাই নিয়ে ব্যাপক কৌতুহল তৈরি হয়েছে। অনেক কেউকেটারই অ্যাকাউন্ট রয়েছে সুইস ব্যাঙ্কে থাকতে পারে। ঝুলি থেকে এইবার কার কার নাম বের হবে, সেই জল্পনাই চলছে।