মঙ্গলবার ৮০ হাজারের নিচে নেমেছিল দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। বুধবার ফের ৮০ হাজার ছাড়াল দৈনিক আক্রান্ত। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা সংক্রমণের শিকার হয়েছেন ৮৩ হাজার ৩৪৭ জন। সেই সঙ্গে মোট সংক্রমণ ছাড়িয়েছে ৫৬ লক্ষ। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী বর্তমানে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৬ লক্ষ ৪৬ হাজার ১১ জন। 

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১,০৮৫ জনের। যার ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা ৯০ হাজার পার করেছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান বলছে বর্তমানে ভারতে কোভিড ১৯ রোগে মৃতের সংখ্যা ৯০ হাজার ২০ জন। 

 

 

তবে সবথেকে আশা জাগাচ্ছে সুস্থতার হার। দেশে বর্তমানে করোনা জয়ীর সংখ্যা পৌঁছেছে ৪৫ লক্ষ ৮৭ হাজার ৬১৪ তে। ফলে ভারতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখন ৯ লক্ষ ৬৮ হাজার ৩৭৭।  গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়েছেন ৮৯ হাজার ৭৪৬ জন। মঙ্গলবার সুস্থ হয়েছিলেন এক লক্ষেরও বেশি। এখনও পর্যন্ত দেশে সুস্থতার হার ৮২.৮৬ শতাংশ। মৃতের হার এসে দাঁড়িয়েছে ১.৫৯ শতাংশে।

প্রতি দিন যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হচ্ছে তার মধ্যে যত শতাংশের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, সেটাকেই বলা হচ্ছে পজিটিভিটি রেট বা সংক্রমণের হার। গত দু’দিন ধরেই তা আট শতাংশে আবদ্ধ। বুধবার   পজিটিভিটি রেট ছিল ৮.৭৪ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে পরীক্ষা হয়েছে ন’লক্ষ ৫৩ হাজার ৬৮৩ জনের। যা সোমবারের তুলনায় বেশি হলেও গত সপ্তাহের অন্যান্য দিনের তুলনায় কম।

মোট আক্রান্তের তালিকায় শুরু থেকেই দেশে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। দেশের মোট আক্রান্তের ২০ শতাংশেরও বেশি রয়েছে মারাঠা রাজ্যে । এখনও অবধি ১২ লক্ষ ৪২ হাজার জন আক্রান্ত হয়েছেন মহারাষ্ট্রে। ৬ লক্ষ ৩৯ হাজার আক্রান্ত নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। তামিলনাড়ু ও কর্নাটকে মোট আক্রান্ত যথাক্রমে ৫  লক্ষ ৫২ হাজার ও ৫ লক্ষ ৩৩ হাজার। উত্তরপ্রদেশে সংখ্যাটা সাড়ে তিন লক্ষ পেরিয়েছে। দিল্লিতেও  আড়াই লক্ষ পেরলো করোনা রোগী। তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে থাকা পশ্চিমবঙ্গে মোট আক্রান্তের সংখ্যা  ২ লক্ষ ৩১ হাজার।