অবশেষে আশার আলো দেখাতে শুরু করেছে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের করোনা রিপোর্ট। দেশে সোমবারই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজারের নিচে নেমেছিল। মঙ্গলবার সংখ্যাটা আরও কমল। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭৫ হাজার ৮৩ জন। ফলে দেশে বর্তমানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ৫৫ লক্ষ ৬২  হাজার ৬৬৪।

দৈনিক আক্রান্তের মত এদিন দৈনিক মৃতের সংখ্যাও হ্রাস পয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন ১,০৫৩ জন। ফলে দেশে কোভিড ১৯ রোগে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮৮,৯৩৫।

 

 

তবে সবথেকে কামাল দেখাচ্ছে দেশে সুস্থতার হার। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনা জয়ীর সংখ্যা ৪৪ লক্ষ ৯৭ হাজার ৮৬৮। ফলে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখন ৯ লক্ষ ৭৫ হাজার ৮৬১। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড গড়ে সুস্থ হয়েছে ১ লক্ষ ১৪৬৮ জন। এই নিয়ে পর পর ৩ দিন দৈনিক সুস্থতার হার ৯০ হাজারের উপরে থাকল। পাশাপাশি দৈনিক সংক্রমণের থেকে টানা ৩ দিন সুস্থতার হার বেশি থাকল। সারা দেশে সুস্থতার হার বর্তমানে ৮০.৮৬ শতাংশ। দেশে মৃত্যুর হার ১.৬০ শতাংশ।

তবে দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কমে যাওয়ার পেছনে  অবশ্য অনেকে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা কমে যাওয়াকে দায়ী করছেন। একটা সময় দেশে করোনা পরীক্ষার সংখ্যাটা ১২-১৩ লক্ষের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে গত দু’দিন তা কমের দিকে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনার পরীক্ষা একধাক্কায় অনেকটা কমে গিয়েছে। দীর্ঘদিন বাদে করোনা পরীক্ষার সংখ্যাটা সাড়ে ৯ লক্ষেরও নিচে নেমেছে। আর সম্ভবত সেকারণেই গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করোনা আক্রান্তের সংখ্যাটা আগের কয়েকদিনের তুলনায় অনেকটাই কম।

এখনও দৈনিক আক্রান্ত ও মৃত্যুর নিরিখে সবার আগে রয়েছে মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘন্টায় মারাঠা রাজ্য়ে ১৫,৭৩৮ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এখনও পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে মোচ আক্রান্তের সংখ্যা ১২,২৪, ৩৮০  জন। আক্রান্তের নিরিখে দেশে প্রথম ৫ রাজ্য হল মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, কর্নাটক, উত্তরপ্রদেশ। ষষ্ঠস্থানে রয়েছে দিল্লি। আর সপ্তমস্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। তবে আক্রান্ত ও মৃত্যুর মত সুস্থতার সংখ্যাতেও মহারাষ্ট্র সবার আগে। গত ২৪ ঘন্টায় সেথানে প্রায় ৩২ হাজার মানুষ সুস্থ হয়েছেন। এরপর সুস্থতার সংখ্যায় রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ এবং কর্নাটক।