সমস্ত ঠিক থাকলে চতুর্থ দেশ হিসেবে চাঁদে পদার্পন করবে ভারত। জোর কদমে প্রস্তুতি চলছে চন্দ্রাভিযানের প্রস্তুতি। জুলাই মাসের ১৫ তারিখ রওনা দেবে ভারতের  চন্দ্রযান২।

ভারতের প্রথম চন্দ্রযান, ২০০৮ সালে চাঁদের কক্ষে ঘুরলেও মাটিতে পা রাখতে পারেনি। চন্দ্রযান - এর ব্যর্থতা থেকেই শিক্ষা নিয়ে ভারত চন্দ্রযান ২ উৎক্ষেপণ করতে চাইছে। এবার লক্ষ্য চাঁদের মাটিতে পা দিয়ে জল, খনিজ ও পাথরের প্রকৃতি সন্ধান করা। ইসরোর বিজ্ঞানীরা সে কথা মাথায় রেথেই চন্দ্রযান-২ তৈরি করছেন। 

সংবাদসংস্থার সূত্রের খবর এই চন্দ্রযানে মূল অংশ তিনটি, ল্যান্ডার, অরবিটার ও রোভার। সব ঠিকঠাক চললে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের ৬ তারিখ চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে পৌঁছবে এই চন্দ্রযান। ইসরো সূত্রে খবর, মোট ১৪ দিন চাঁদ থেকে তথ্য সংগ্রহ করবে চন্দ্রযান ২। ইসরোর চেয়ারপার্সন কে শিভন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, 'চাঁদে পৌঁছে রোভার চাঁদের পৃষ্ঠতলের উপাদান সংগ্রহ করবে। এবং আমাদেরকে সেই নমুনা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য দেবে। আপাতত ১৫ মিনিটের অবতরণটিই আমাদের জন্যে সবচেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জ।'

গত বছর মার্চ মাসে ভারতবর্ষ জানান দিয়েছিল নতুন এই অভিযানের প্রস্তুতির কথা। এই প্রকল্পের আনুমানিক খরচ ১০ হাজার কোটি টাকা।