ভারতীয় সেনার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গেল। শুক্রবার খোদ টুইটারের পক্ষ থেকেই এই অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হয়। কেন 'ভারতীয় সেনার চিনার কর্পস' টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয় এই নিয়ে এবার মুখ খুললেন বিজেপি সাংসদ রাজীব চন্দ্রশেখর। তিনি প্রতিবাদ জানিয়ে পাল্টা টুইটও করেন।

রাজীব চন্দ্রশেখর এদিন টুইটার ও টুইটার ইন্ডিয়াকে ট্যাগ করে লেখেন "আপনদের কি মাথা খারাপ হয়ে গিয়েছে! এর কারণ কী! কার কথায় এরকম একটি পদক্ষেপ করলেন! শীঘ্র অ্যাকাউন্টিকে ঠিক করুন। টুইটারের অ্যালগোরিদমকে খতিয়ে দেখার সময় এসেছে।" 

 

 

তবে এই ব্যাপারটি টুইটারের সামনে তুলে ধরা হলে এক ঘণ্টার মধ্যে তারা পদক্ষেপ করে। এমনই জানান ভারতীয় সেনার এক উচ্চপদস্থ সেনা।  তিনি জানান, এক ঘণ্টার মধ্যে ওই টুইটার অ্য়াকাউন্টটি রিস্টোর করা হয়। এমনকী ওই টুইটার অ্যাকাউন্টের ফলোয়ারদের ও রিস্টোর করা হয়। 

ওই অ্যাকাউন্টটিতে ফলোয়ার সংখ্যা ছিল ৪০,৩০০। তাও কেন টুইটার এটিকে ব্লক করল তা  নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। টুইটারের পক্ষ থেকে বলা হয়, ১.৮ মিলিয়ন অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার কাজ চলছিল। তখনই ভুল করে তারা এই অ্যাকাউন্টটি ব্লক করে দেয়।  

'ভারতীয় সেনার চিনার কর্পস' মূলত পাকিস্তানের মদতে চলা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কাজ করে। কাশ্মীর ও সীমান্ত অঞ্চলের জন্যই এরা কাজ করে।