২০১৭ সালের পর আবারও সংঘর্ষে জড়ালেন ভারতীয় ও চিনের একদল সৈনিক। উত্তর সিকিমের নাকুলা পাস এলাকায় শনিবার এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে বলেই জানিয়েছে একটি সূত্র। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় সেনার এক আধিকারিক জানিয়েছেন,  এই সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন ভারতীয় সৈনিক ও চিনের ৭ সৈনিক আহত হয়েছেন। সীমান্তে পহারারত দুই দেশের প্রায় ১৫০ সৈনিক এই সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত ছিলেন বলেও জানান হয়েছে। 

সমুদ্র পৃষ্ট থেকে প্রায় ৫ হাজার মিটার উঁচুতে উত্তর সিকিমের নাকুলা পাস সীমান্ত। শনিবারের সংঘর্ষের কারণে এই এলাকায় আহত ভারতীয় সৈন্যদের সরিয়ে আনা হয়েছে। তার পরিবর্তে পাঠান হয়েছে অন্য সৈন্য। তৃণমূল স্তরে কথোপকথনের পরই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে বলে সেনার এক আধিকারিক জানিয়েছেন। তবে সেনার সদর দফতর থেকে এই সীমান্ত সংঘর্ষের কথা এখনও স্বীকার করা হয়নি। পাশাপাশি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সেনা কর্তা জানিয়েছেন সীমান্ত সমস্যা সমাধান না হওয়া পর্যন্ত এই জাতীয় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেগুলি প্রথমিক স্তকেই কথাবার্ত বলে সমাধান করে নেওয়া হয়। 

আরও পড়ুনঃ প্রথম সপ্তাহে উৎপাদনে জোর নয় ট্রায়াল রানই চলবে, লকডাউন ওঠার কাউন্টডাউন শুরু করেছে কেন্দ্র ...

আরও পড়ুনঃ কৈলাশ মানসরোবরগামী ৮০ কিলোমিটার লিঙ্ক রোড নিয়ে আপত্তি নেপালের, যুক্তি ওড়াল ভারত ...

২০১৭ সালে লাদাখের প্যাংগং হ্রদের কাছেও ভারত ও চিনের সৈন্যরা একে অপরের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছিল। সেই সময় দুই দেশের সৈন্যরা একে অপরকে লক্ষ্য় করে পাথর ছুঁড়ে মেরেছিল। সেই সময় সীমান্ত গুলিও চলেছিল। তবে সিকিম সংলগ্ন ডোকলাম নিয়ে এমনিতেই ভারত ও চিনের মধ্যে একটা অস্বস্তি রয়েছে। দুই দেশই আলোচনার পর সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ায় সাময়িকভাবে সেই সমস্যায় ইতি পড়েছে বলেও মনে করেছেন বিশেষজ্ঞরা।