যতটা সময় লাগবে মনে করা হয়েছিল, ততটা হয়তো লাগবে না। কারণ প্রত্যাশিত গতির থেকে অনেক দ্রুত ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ভারতীয় অর্থনীতি। এমনটাই জানিয়েছে, 'অক্সফোর্ড ইকোনমিকস'। বিশ্বব্যাপী অর্থনীতির গতির পূর্বাভাস দেয় এই সংস্থা। তাদের মতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ককেও আর বেশিদিন অর্থনৈতিক সুবিধা দিতে হবে না।

তবে, 'অক্সফোর্ড ইকোনমিকস'-এর মতে চলতি আর্থিক বছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে মুদ্রাস্ফীতি ৬ শতাংশের বেশি বাড়তে পারে। ডিসেম্বরের আর্থিক নীতি পর্যালোচনা সভাতেও আরবিআই-কে আর্থিক সুবিধা দেওয়ার নীতিই ধরে রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে। সংস্থাটি জানিয়েছে, গত সেপ্টেম্বরে মুদ্রাস্ফীতি দাঁড়িয়েছিল ৭.২৭ শতাংশে। অক্টোবর মাসে তা পৌঁছায় ৭.৬১ শতাংশে। যা প্রায় গত সাড়ে ছয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। জ্বালানী ছাড়া প্রায় প্রতিটি পণ্য বিভাগের দাম উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেড়েছে।

তবে, ২০২১ সালে তা ক্রমে নিচের দিকে নামবে বলেই মনে করা হচ্ছে। অক্সফোর্ড ইকোনমিক্স জানিয়েছে, মুদ্রাস্ফীতির পাশাপাশিই নীচের অংশ থেকে শক্তিশালী অর্থনৈতিক কার্যক্রমের তথ্য এসেছে তাদের হাতে। যা থেকে বোঝা যাচ্ছে প্রত্যাশার চেয়ে অনেক দ্রুত ঘুরে দাঁড়াতে পারে ভারতীয় অর্থনীতি। আরবিআইয়ের অর্থনৈতিক সুবিধা দেওয়ার পর্বও শেষ হওয়ার ক্রমবর্ধমান সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।

শুধু অক্সফোর্ড ইকোনমিক্স সংস্থাই নয়, মুডি'স ইনভেস্টরস সার্ভিস-ও তাদের ভারতের জিডিপি বৃদ্ধির পূর্বাভাস পরিবর্তন করেছে।  তারাও বলছে দেশব্যাপী দীর্ঘ ও কঠোর লকডাউনের পর অর্থনীতির যতটা সংকোচন ঘটেছিল, তার থেকে অবস্থা এখন অনেকটাই ভালো। তারাও জানিয়েছে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে অর্থনীতি, তবে এখনও অবধি তার পরিমাণ অতি সামান্যই।