জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রদত্তকারী ৩৭০ ধারা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর পাকিস্তানে অবস্থিত ভারতের হাইকমিশন-এর তরফে পাকিস্তানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করার নির্দেশ দেওয়া হল। 

রাজ্যসভায় ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা এবং ৩৫এ ধারা বাতিল করার পর কেটে গিয়েছে একটা দিন। আর ঠিক এক দিন পরই পাকিস্তানে ভারতের হাইকমিশনার অজয় বিসারিয়া তার দফতরে নিরাপত্তা বলয় আরও জোরদার করার নির্দেশ দিলেন। মঙ্গলবার পাকিস্তানের একাধিক সংগঠনের তরফে ইসলামাবাদে ভারতের হাই কমিশনের বাইরে বিক্ষোভ প্রতিবাদ করতে শুরু করে। 

প্রসঙ্গত, সংবিধানের ৩৭০ এবং ৩৫এ ধারা রদ করার সিদ্ধান্তকে 'বেআইনি' বলে মত প্রকাশ করেছিল পাকিস্তান। গতকাল পাক বিদেশ মন্ত্রকের তরফে প্রকাশিত একটি বিবৃতিতে জানানো হয়ে যে কাশ্মীর সমস্যা একটি আন্তর্জাতিক সমস্যা। আর এই বিষয়ে ভারতের একার পদক্ষেপকে কার্যত বেআইনি বলে ব্যাখ্যা করে পাকিস্তান। কাশ্মীর নিয়ে ভারতের এই সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনাও করে পাকিস্তান। সেদেশের তরফে আরও জানানো হয় যে, ভারতের নেওয়া একতরফা কোনও সিদ্ধান্ত কাশ্মীর সমস্যার চরিত্র বদল করতে পারে না। 

প্রসঙ্গত এই সিদ্ধান্তের পর ভারত-পাক সম্পর্কের আরও অবনতি হতে পারে এবং তার জেরে সীমান্তের পরিবেশ অশান্ত হয়ে উঠতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক মহল। মঙ্গলবার তাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং রাষ্ট্রসঙ্ঘের তরফে দুই দেশের কাছে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার আর্জি দেওয়া হয়।