মার্চ মাস এগিয়ে আসছে। মার্চের শেষেই চলতি আর্থিক বছর শেষ। সংগঠিত ক্ষেত্রে চাকুরিরত সকলেরই আশা থাকে বেতনবৃদ্ধির। কিন্তু এই বছর ভারতীয়দের বিশেষ বেতনবৃদ্ধির আশা না রাখাই ভালো, এমনটাই বলছে আর্থিক সমাধান সংস্থা এওএন। তাদের সমীক্ষার ফল বলছে, ২০০৯ সাল থেকে ভারতের সংগঠিত ক্ষেত্রে এই বছরই বেতন বৃদ্ধির হার সবচেয়ে মন্থর হতে চলেছে। সম্ভাব্য বেতন বৃদ্ধির এই করুণ চেহারার অন্যতম কারণ যে ভারতের অর্থনৈতিক মন্দা, তা বলার জন্য আর্থিক বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন পড়ে না।

বলা হচ্ছে আর্থিক প্রবণতা অনুযায়ী ২০১৯ সালে যে ভারতীয় সংস্থাগুলি গড়ে ৯.৩ শতাংশ হারে বেতন বৃদ্ধি করেছে, তারা বেশিরভাগই ২০২০ সালে গড় বেতন বাড়িয়ে ৯.১ শতাংশ-এর বেশি বাড়াতে পারবে না। ২০ টি বিভিন্ন শিল্পক্ষেত্রের ১০০০টিরও বেশি সংস্থার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে গবেষণা চালিয়ে এই তথ্যই উঠে এসেছে। ২০১৮ সালে যেখানে এই ক্ষেত্রে বেতনবৃদ্ধির হার ছিল ১০.১ শতাংশ, সেখানে ২০২০-তে এই পরিসংখ্যান নেমে দাঁড়িয়েছে ৮.৩ শতাংশে। তবে এই পতন সত্ত্বেও, প্রায় ৪২ শতাংশ সংস্থাই ৮ থেকে ১০ শতাংশ পর্যন্ত বেতন বৃদ্ধি হতে পারে বলে ধরা হয়েছে। এমনকি ২০২০ সালে লাভের মুখ দেখেনি যারা সেইসব সংস্থাগুলিও ৮.১ শতাংশ পর্যন্ত বেতন বৃদ্ধি করবে বলে অনুমান করা হয়েছে। তবে বেশ খারাপ অবস্থা যানবাহন উৎপাদন শিল্পে।

তবে এই করুণ পরিসংখ্যান সত্ত্বেও, ভারত এখনও এশিয়া বেশ কয়েকটি উন্নত দেশের থেকে এই বিষয়ে এগিয়ে রয়েছে। পুরো এশীয় অঞ্চলের মধ্যে ভারতই এই বছর সর্বাধিক বেতন বৃদ্ধি করতে চলেছে। এই বিষয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে চিন (৬.৩ শতাংশ)। তারপর রয়েছে যথাক্রমে ফিলিপাইন্স (৫.৮ শতাংশ) এবং জাপান (২.৪ শতাংশ)। যারা এই দশকের শুরুটি আর্থিকভাবে আরও ভাল হওয়ার প্রত্যাশা করছিলেন, তাদের জন্য অবশ্যই এটা দারুণ খারাপ খবর।