করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে লকডাউন একমাত্র হাতিয়ার নয়। সংক্রমণ রুখতে দ্রুত ও প্রচুর মানুষের পরীক্ষার প্রয়োজন রয়েছে। বেশ কয়েক দিন ধরেই এই দাবি তুলে আসছিলেন কংগ্রেসের ওয়াইনাডের সাংসদ রাহুল গান্ধি। কিন্তু সোমবার থেকে রাহুল গান্ধি সরব হন চিন থেকে আমদানি করা কিটের বিরুদ্ধে দুর্ণীতির অভিযোগ তুলে।

সোশ্যাল মিডিয়ার রাহুল গান্ধী মন্তব্য করেছেন, কোনও মানুষ যে তাঁর লক্ষ লক্ষ ভাই এই দুঃসময় থেকে প্রচুর টাকা লাভ ও লাভের চেষ্টা করতে পারে তা তাঁর বিশ্বাস ও বোধগম্যতার বাইরে। এই কেলেঙ্কারি প্রতিটি ভারতবাসীকে চরম অপমান করেছে। চিনের কিট নিয়ে সামনে আসা দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন রাহুল গান্ধী। পাশাপাশি তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে অবিলম্বে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য  আবেদনও জানিয়েছেন তিনি। 

৪৯ বছরের কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীর মন্তব্য বর্তমানে গোটা দেশ করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও কিছু লোক তাঁদের ঠকিয়ে মুনাফা লাভের চেষ্টা করে যাচ্ছে। চিন থেকে আমদানি করা কিট নিয়ে প্রথম থেকেই একের পর এক অভিযোগ উঠছিল। সর্বশেষ অভিযোগ ত্রুটি পূর্ণ এই কিটের জন্য অনেক রাজ্যকে দ্বিগুণ অর্থ প্রদান করতে হয়েছিল। 

অভিযোগ চিন থেকে এই কিটগুলি  আমদানীকারক সংস্থা ম্যাট্রিক্স ২৪৫ টাকার বিনিময়ে কিনেছিল। দেশীয় দুটি বিরতণকারী সংস্থা রিয়েল মেটাবলিক্স  ও আরক ফার্মাসিউটিক্যালক সেই কিটগুলি ভারত সরকারকে ৬০০ টাকায় বিক্রি করে। কিট প্রতি প্রায় ৪০০ টাকা দাম বাড়ান হয়েছিল বলে অভিযোগ। মূলত এই কিটগুলি কেনা হয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্ত সংস্থা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের তত্ত্বাবধানে। 

আরও পড়ুনঃ ৩ মে-র পরেও কি লকডাউন কার্যকর থাকবে, প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়াল বৈঠকের পর উঠছে প্রশ্ন ...

আরও পড়ুনঃ অবশেষে চিনের কিট দিয়ে করোনা পরীক্ষায় ইতি টানল আইসিএমআর, সরকারি টাকা জলে গেল না তো ...  

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর করোনা ও লকডাউন নিয়ে ভার্চুয়াল বৈঠকে অনুপস্থিত বিজয়ন, হাজির থাকলেন মমতা ...

 কিট নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে এই অভিযোগ তুলে ইতিমধ্যেই আসরে নেমেছে কংগ্রেস। আর দিল্লি হাইকোর্টের রায়কেই হাতিয়ার করেই এগিয়ে যেতে চাইছে শতাব্দী প্রাচিন এই দলটি। কারণ ইতিমধ্যেই দিল্লি হাইকোর্ট বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করেছে। আদালত বলেছে  দেশজুড়ে চলা মহামারীর সময় লাভ করা উচিত নয়। সরকার বিষয়টি পরিষ্কার করে দেবে বলেও আশা প্রকাশ করেছে আদালত।