দিল্লি থেকে ভোপালে যাওয়ার বিমানে যাত্রীদের সঙ্গে বচসায় জড়ালেন বিজেপির বিতর্তিক সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা। আর মুহুর্তে ভাইরাল হোল সেই ভিডিও। 

ভিডিও-তে দেখা যাচ্ছে যাত্রীরা প্রজ্ঞাতে বলছেন, সাংসদ হিসাবে তার কখনই উচিত নয় সাধারণ মানুষকে বিব্রত করা। 

আরও পড়ুন : জলদস্যুদের হাত থেকে অবশেষে মিলল মুক্তি, রেহাই পেলেন ১৮ জন ভারতীয়

তবে কথোপকথন তলাকালীন প্রজ্ঞাও স্পষ্ট করে দেন, নিজের স্বচ্ছন্দ্যও দেখাও তাঁর কর্তব্য। 

 

 

জানা গেছে, পছন্দের আসনের জন্য অতিরিক্ত খরচ করেছিলেন সাধ্বী প্রজ্ঞা। বিমানের প্রথম আনসটি পছন্দ ছিল তাঁর। তবে এমারজেন্সির কারণে ওই আসন যাত্রীদের ছাড়তে রাজি হয়নি নিরাপত্তা সংস্থা। সেইমতো আসন ছেড়ে দিতে অনুরোধ করা হয় প্রজ্ঞা ঠাকুরকে। 

প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে বাক-বিতণ্ড চলার পর দ্বিতীয় সারিতে বসতে রাজি হন প্রজ্ঞা ঠাকুর। তবে দেরিতে বিমান ছাড়ায় হয়রানি হয় যাত্রীদের। আর তাই নিয়েই যাত্রীরা কড়া কথা শোনান প্রজ্ঞাকে।

আরও পড়ুন : ৮ কোটির কুকুর চুরি, খুঁজে দিলেই ইনাম মিলবে লাখ টাকা

এই ঘটনার জন্য বিমান সংস্থাকেই দায়ী করেছেন সাংসদ ঘনিষ্ঠ নেত্রী উপমা সিং। তাঁর অভিযোগ, অতিরিক্ত খরচ করা হলেও নির্দিষ্ট আসন ব্যবহার করতে দেয়নি বিমান সংস্থা। এমনকি প্রজ্ঞা হুইলচেয়ারে রয়েছেন জানা সত্ত্বেও তাঁর জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়নি।