ফের ইতিহাস সৃষ্টি করল  ভারতীয় রেল। বেসরকারিকরণের পথে প্রথম ধাপ এগোল রেল। যাত্রা শুরু করলে  লখনউ থেকে দিল্লিগামী তেজস এক্সপ্রেসের। এটিই হল দেশের প্রথম বেসরকারি ট্রেন। যার দায়িত্বে রয়েছে  ইন্ডিয়ান রেলওয়েজ কেটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশন বা আইআরসিটিসি।

শুক্রবার পতাকা নেড়ে তেজসের যাত্রার সূচনা করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। আন্তর্জাতিক মানের বিলাসিতা ও আরামের  ব্যবস্থা রয়েছে এই ট্রেনে। আর এর বিশেষত্ব, ট্রেনের নির্দিষ্ট স্টশেন পৌঁছতে দেরি হলেই দিল্লি-লখনউ তেজস এক্সপ্রেসের যাত্রীরা আইআরসিটিটিস-র তরফে পাবেন ক্ষতিপূরণ। ট্রেন এক ঘণ্টা দেরি করলে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ১০০টা কা, আর দুঘণ্টা দেরি হলে ক্ষতিপূরণের পরিমাণ দাঁড়াবে জনপ্রতি ২৫০ টাকা। 

রেলকে বেসরকারিকরণের প্রথম পদক্ষেপই হল তেজস এক্সপ্রেস। ট্রেন চালানোর জন্য দরপত্র চেয়েছিল রেলমন্ত্রক। আর সেই দরপত্রে ট্রেন চালানোর অনুমতি পায় বেসরকারি সংস্থা আইআরসিটিসি। তেজসের যাত্রীদের একাধিক সুবিধা দিচ্ছে আইআরসিটিসি। বিমানের মত থাকছে ট্রেন সেবিকা। যাত্রীদের জন্য ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত রয়েছে  ট্রাভেল বিমার ব্যবস্থা। গত সেপ্টেম্বরে শুরু হয়েছিল বুকিং। তবে  দীপাবলি পর্যন্ত ইতিমধ্যে প্রায় সব টিকিটই বিক্রি হয়ে গিয়েছে।