Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Uttarakhand Assembly Elections 2022: ফের উত্তরাখণ্ডে সরকার গড়তে পারে বিজেপি, আসন বাড়বে কংগ্রেসেরও

ইন্ডিয়া নিউজের জন কি বাতের সমীক্ষা অনুযায়ী, ৭০ আসনের বিধানসভায় প্রায় ৩৫ থেকে ৩৮টি আসনে জয়ী হবে তারা। এছাড়া কংগ্রেসের দখলে যাবে ২৭ থেকে ৩১টি আসন। আর আম আদমি পার্টি ১ থেকে ৬টি আসন জিততে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

Jan Ki Baat Opinion Poll on Uttarakhand Assembly Elections 2022 bmm
Author
Kolkata, First Published Dec 25, 2021, 5:54 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) (BJP) জন্য আগামী বছর অর্থাৎ ২০২২ আশা এবং চ্যালেঞ্জের নতুন একটি বছর হতে চলেছে। কারণ বছর ঘুরলেই একাধিক রাজ্যে নির্বাচন (Election) রয়েছে। আর তার মধ্যে অন্যতম হল উত্তরাখণ্ডের বিধানসভা নির্বাচন (Uttarakhand Election 2022)। তবে সাম্প্রতিক সমীক্ষা বলছে আগামী পাঁচ বছরের জন্য ফের উত্তরাখণ্ড নিজেদের দখলে রাখতে পারবে বিজেপি। ইন্ডিয়া নিউজের (India News) জন কি বাতের (Jan Ki Baat) সমীক্ষা অনুযায়ী, ৭০ আসনের বিধানসভায় প্রায় ৩৫ থেকে ৩৮টি আসনে জয়ী হবে তারা। এছাড়া কংগ্রেসের (Congress) দখলে যাবে ২৭ থেকে ৩১টি আসন। আর আম আদমি পার্টি (Aam Aadmi Party) ১ থেকে ৬টি আসন জিততে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। গত বিধানসভা নির্বাচনে মোট ৫৭টি আসনে জয়ী হয়েছিল বিজেপি।   

তবে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির জেতার সম্ভাবনা সবথেকে বেশি থাকলেও কংগ্রেসের থেকে খুব বেশি পরিমাণ ভোট পাবে না তারা। বলা যেতে পারে, কান ঘেঁষে কংগ্রেসের থেকে সামান্য কিছু ভোটে এগিয়ে থাকতে পারে বিজেপি। মোট ৫ হাজার মানুষের উপর জন কি বাত সমীক্ষা করেছিল ইন্ডিয়া নিউজ। সেই সমীক্ষার পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ৩৯ শতাংশ ভোট পেয়ে উত্তরাখণ্ডে ফের সরকার গড়তে পারে বিজেপি। তবে মোট ভোট প্রাপ্তির নিরিখে পিছিয়ে থাকবে না কংগ্রেসও। মোট ৩৮.২ শতাংশ ভোট পেতে পারে তারা। অন্যদিকে, আম আদমি পার্টির ঝুলিতে যেতে পারে ১১.৭ শতাংশ ভোট।  

আরও পড়ুন- 'গোয়াকে ধর্মের নামে বিভক্ত করতে চাইছে তৃণমূল', তিন মাসেই তৃণমূল ত্যাগ প্রাক্তন বিধায়ক লাবুর

উত্তরাখণ্ডে কেন্দ্রীয় সরকারে একাধিক প্রকল্পই সেখানে ফের বিজেপিকে জিততে সাহায্য করবে বলে মনে করছেন সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৬৯ শতাংশ মানুষ। তবে বাকি ৩১ শতাংশের মত আবার অন্য। প্রতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়া রয়েছে কিনা সেই নিয়ে সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে,  ৬০ শতাংশ মানুষের মতে বিষয়টি প্রার্থীর বিরুদ্ধে, ৩০ শতাংশের মতে তা দলের বিরুদ্ধে আর সেখানে ১০ শতাংশ বিশ্বাস করেন যে সেখানে প্রতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়া আছে।

আরও পড়ুন- ভোটে লড়বেন কৃষক নেতারা, জোট গঠনে থাকছে বড় চমক

আর এই নির্বাচনে বেকারত্ব এবং অভিবাসনের মতো বিষয় সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করেন ৪৭ শতাংশ মানুষ। ২০ শতাংশের মতে, স্বাস্থ্য ও জলকে প্রধান সমস্যা হিসেবে তুলে ধরা হতে পারে। ১২ শতাংশ শিক্ষার কথা উল্লেখ করেছেন আর ১০ শতাংশ বলেছেন যে নির্বাচনে মূল্যবৃদ্ধি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হতে পারে।

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ৪৫ শতাংশ ব্রাহ্মণ এবং রাজপুতরা বিজেপির পক্ষে ভোট দিয়েছেন। আর বাকি ৩৫ শতাংশ কংগ্রেসের পক্ষে। তবে মুসলিম সম্প্রদায় ও শিখ সম্প্রদায়ের ভোটের ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস। প্রায় মুসলিম সম্প্রদায়ের ৮৫ শতাংশ ও শিখ সম্প্রদায়ের ৬০ শতাংশ ভোট কংগ্রেসের ঝুলিতে যাবে বলে সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে। এমনকী, তফসিলি জাতির ভোটও রয়েছে কংগ্রেসের পক্ষে। সেখান থেকে প্রায় ৭৫ শতাংশ সমর্থন পাওয়া গিয়েছে।

তবে বিজেপি জিতলেও মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে কাকে দেখতে চান সেখানকার মানুষ? সেই বিষয়ও উঠে এসেছে সমীক্ষায়। দেখা গিয়েছে, আগামী ৫ বছর মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পুষ্কর সিং ধামিকে দেখতে চান ৪০ শতাংশ মানুষ। অন্যদিকে ২০ শতাংশ দেখতে চান হরিশ রাওয়াতকে। আর ২০ শতাংশ সমর্থন করেছেন বিজেপি নেতা অনিল বালুনিকে। মাত্র ৯ শতাংশ মানুষ কর্নেল অজয় কোথিয়ালকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios