মদ্যপান করবেন না বলেছিলেন সেনা জওয়ান। আর সেই অপরাধেই মেজরের হাতে বেধড়ক মার খেল ওই সেনা জওয়ান। ঘটনাটি ঘটেছে আউন্ধ মিলিটারি স্টেশনে। ঘটনায় অভিযুক্তের তালিকায় রয়েছে আরও তিনজন।  

জানা গিয়েছে, গত ৩ জুন তারিখে অভিযুক্ত ওই চার ব্যক্তি একসঙ্গে বসে মদ্যপান করছিলেন। সেই সময়ে আসরে ডেকে আনা হয় ওই সেনা জওয়ানকে। তাঁকে পানীয় দেওয়া হলে সে তাতে নাকোচ করে দেয়। বারবার তাঁর না শুনতে শুনতে বিষয়টি ঠিক মেনে নিতে পারছিলেন না মেজর-সহ ওই চার ব্যক্তি। আর সেই রাগ থেকে ওই সেনা জওয়ানের ওপর চড়াও হন তাঁরা। এরপর এলোপাথারি চড়, লাথি, ঘুষি চালানো হয় তাঁর ওপর। মারা হয় লাঠি এবং লোহার রড দিয়েও। তাঁর মাথাতেও একের পর এক আঘাত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। 

এখানেই শেষ নয়, ওই সেনা জওয়ান যাতে কোনওভাবেই চিৎকার করে লোক জড়ো না করতে পারে তার জন্য মুখে পুরে দেওয়া হয়েছিল কাপড়ও। এই অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে এক সময় জ্ঞান হারায় ওই যুবক। বাহিনীর বাকি জওয়ানরা তাঁকে ওই অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে যান অউন্ধ সিভিল হাসপাতালে। তাঁর গুরুতর অবস্থা দেখে তাঁকে ভর্তি করে নেওয়া হয় এবং শুরু হয় চিকিৎসা। 

বিষয়টি জানতে পেরে ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমেছেন পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই বিষয়ে অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করবেন সেনাবাহিনীর প্রধানরা। সেখান থেকেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।