দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম বদল হোক। নরেন্দ্র মোদীর নামে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম হোক এমএনইউ। শনিবার এবিভিপি আয়োজিত 'এক শাম শহিদোকে নাম' অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ে হাজির হয়ে এমনই প্রস্তাব দিলেন গায়ক তথা উত্তর-পশ্চিম দিল্লির বিজেপি সাংসদ হংসরাজ হংস। শুধু তাই নয়, কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে নেহরু-গান্ধী পরিবারকে ঠুকে তিনি বলেন, 'আমরা প্রবীণদের ভুলের কেসারত দিচ্ছি'।  

অনুষ্ঠানে তিনি গানও পরিবেশন করেন। তারপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ৩৭০ ধারা বাতিলের পর কাশ্মীরে সবাই শান্তিতে থাকবেন। কোনও বোমা বিস্ফোরণ দেখা যাবে না। এরপরই তিনি জেএনইউ-এর নাম বদলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে এমএনইউ করার প্রস্তাব দেন। বলেন, 'মোদীর নামে কিছু তো একটা হওয়া দরকার'।

অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, জওহরলাল নেহরু জম্মু কাশ্মীর নিয়ে ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। সেখানে প্রধানমন্ত্রী মোদী দেশের জন্য ইতিমধ্যেই অনেক ভাল কাজ করেছেন। তাই তিনি জেএনইউ-এর নাম বদলে 'মোদী নরেন্দ্র ইউনিভার্সিটি' করার প্রস্তাব দিয়েছেন।

দিল্লির বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারিও, হংসরাজের বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন। মনো বলেন, আগে জেএনইউ-তে ভারত ভাগের স্লোগান দেওয়া হত। এখন মোদীর আমলে বিশ্ববিদ্যাল অনেকদূর এগিয়ে গিয়েছে। অনেক উন্নতি করেছে। এখন এখানকার ছাত্রছাত্রীরা 'বন্দে মাতরম' 'ভারত মাতা কি জয়' স্লোগান দেয়। হংসরাজের প্রস্তাব নিয়ে তাঁর বক্তব্য, হংসরাজ মোদীকে সম্মান করেন বলেই এই প্রস্তাব দিয়েছেন।