সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এস আব্দুল নাজিরের বাড়ির সামনে মোতায়েন করা হল সিআরপিএফ এবং স্থানীয় পুলিশকে। কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক তাঁকে 'জেড' ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। 

অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চের অন্যতম ছিলেন বিচারপতি এস আব্দুল নাজির। রায় দানের পর থেকেই নাজির ও তাঁর পরিজনদের হুমকি দিচ্ছিল পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া নামে একটি সংগঠন। তার পরিপ্রেক্ষিতেই বিচারপতি নাজিরের নিরাপত্তা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্র।

আরও পড়ুন : এরাই নাকি ভিনগ্রহী, আসল পরিচয় জানতে পেরে বিস্মিত গোটাবিশ্ব

কর্ণাটক সহ দেষশের সবর্ত্রই  'জেড' ক্যাটাগরির নিরাপত্তা পাবেন বিচারপতি নাজির ও তাঁর পরিজনরা। এক পুলিশকর্তা জানিয়েছেন, 'নাজিরের নিরাপত্তার দিকে নজর দিতে স্থানীয় পুলিশের সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীও মোতায়েন করা হয়েছে।"

আরও পড়ুন: বিকিনি পরলেই মিলবে বিনামূল্যে পেট্রোল, অভাবনীয় সাড়ায় মুখ লুকালো কর্তৃপক্ষই

বিচারপতি নাজিরের পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন কর্ণাটকে। বেঙ্গালুরু ও ম্যাঙ্গালুরু সহ গোটা রাজ্যেই  তাঁদের জন্য জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানান হচ্ছে। সবসময় মোতায়েন রয়েছেন ২২ জন নিরাপত্তাকর্মী। 

 

গত ৯ অক্টোবর রামমন্দির নিয়ে ঐতিহাসিক রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট।  বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি রামমন্দির নির্মাণের জন্য দেওয়া হয়। আর মুসলিমদের অযোধ্যার অন্যত্র ৫ একর জমি মসজিদ নির্মাণের জন্য দেওয়া হয়। এই রায়ের জন্য গঠিত ৫ বিচারপতির বেঞ্চের অন্যতম সদস্য ছিলেন বিচারপতি নাজির। পাশাপাশি তিনি ২০১৭ সালে  তিন তালাক বন্ধ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়দানকারী ৫ সদস্যের বেঞ্চের অন্যতম বিচারপতি ছিলেন। 

বর্তমানে ৬১ বছরের বিচারপতি নাজির ১৯৮৩ সালে কর্ণাটক হাইকোর্টের আইনজীবী হিসাবে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। ২০০৩ সালে তিনি হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি নিযুক্ত হন। ২০১৭ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি তিনি সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন।