কংগ্রেসের জাতীয় সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন দাপুটে কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। সম্প্রতি কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে রাহুল গান্ধীর পদত্যাগের রেশ কাটতে না কাটতেই দল থেকে পদত্যাগ করলেন তরুণ নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। 

সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ভরাডুবির পর দল থেকে ইস্তফা দিচ্ছেনন বেশ কয়েক নেতা। আর এবার সেই পথেই হাঁটলেন কংগ্রেসের জাতীয় সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে ইস্তফা গিলেন জ্যোতিরাদিত্য। প্রসঙ্গত ইতিমধ্যেই দল থেকে কদংগ্রেস দলের সদস্যপদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস দলের প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। অন্যান্য বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা দীপক বাবারিয়া, বিবেক তাঙ্খা কংগ্রেস দল থেকে নিজেদের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। সূত্রের খবর, কংগ্রেস দলের সভাপতির পদ থেকে যেহেতু ইস্তফা দিয়েছেন রাহুল গান্ধী সেই কারণে নতুন কোনও সভাপতি যোগ না দেওয়া পর্যন্ত এইসভ পদত্যাগ পত্র গৃহীত হবে না। আর যতদিন না তাঁদের পদত্যাগ পত্র গৃহিত হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত তাঁরা নিজের পদেই থাকবেন। 

প্রসঙ্গত, মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে অনেকেই জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার কথাই ভেবেছিলেন। কিন্তু বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা কমলমাথকেই মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে নির্বাচিত করেছিল দল। পরে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে উপমুখ্যমন্ত্রী পদে নিয়ে আসতে চাইলেও সেই প্রস্তাবে রাজি হননি তিনি। অবশেষে দলের জাতীয় সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন তিনি।