সম্প্রতি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ছেড়ে নেতাদের বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে বিজেপি নেতারা বারবার বলছেন তাঁদের পরিবার বড় পরিবার। সেই পরিবার বুধবার আরও একটু বাড়ল। বুধবার বিজেপিতে যোগ দিলেন কপিল গুজ্জর। গত ফেব্রুয়ারি মাসে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) বিরোধী বিক্ষোভ চলাকালীন দক্ষিণ দিল্লির শাহিনবাগ এলাকায় বাতাসে গুলি ছুঁড়েছিলেন তিনি।

ডিসেম্বররে শেষ থেকে শুরু হয়ে, নাগরিকত্ব বিরোধী সংশোধনী আইন (সিএএ) বিক্ষোভ চলেছিল তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে। মার্চ মাসে করোনভাইরাস মহামারি এবং তারপর লকডাউনের পরিপ্রেক্ষিতে সেই শাহিনবাগ থেকে উঠে গিয়েছিলেন বিক্ষোভকারীরা। তার আগে শীতের মধ্যেও দিন রাত এক করে সেখানে অবস্থানে বসেছিলেন প্রতিবাদী নারী-পুরুষরা।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে সেই বিক্ষোভস্থলেই উপস্থিত হয়ে বাতাসে দুই রাউন্ড গুলি ছুঁড়েছিলেন কপিল গুজ্জর নামে ওই ব্যক্তি। আর তারপর 'জয় শ্রীরাম' বলে স্লোগানও দেন। সেই সঙ্গে চিৎকার করে বলেছিলেন, 'হামারে দেশও মে অর কিসি কি নাহি চালেগি, সির্ফ হিন্দুওঁ কি চালেগি' (আমাদের দেশে শুধুমাত্র হিন্দুদের কথা চলবে, অন্য কারোর নয়)। ঘটনার একদিন পর তাকে গ্রেফতার করছিল পুলিশ। তারপর কোভিড লকডাউন পর্ব কাটিয়ে, এদিন তিনি গেরুয়া শিবিরে যোগ দিলেন।

কপিল গুজ্জরের এি যোগদান নিয়ে বিজেপিকে বিণধতে ছাড়েনি কংগ্রেস। তাদের বক্তব্য, 'অপরাধী ও দাঙ্গাকারী'দের জায়গা বিজেপি-তেই হবে। কংগ্রেস সাংসদ রিপুন বোরা টুইট করে বলেছেন, 'অপরাধীরা এবং দাঙ্গাকারীরা আর কোথায় যাবে? বুদ্ধিমানের মতোই তিনি (বিজেপিকে) বেছে নিয়েছেন। ভারতীয় গুন্ডা পার্টি তাকে কবে পদাধিকারী বানায়, এখন, তারই অপেক্ষা। বিজেপি ভারতের পক্ষে বিপজ্জনক!'।