মঙ্গলবার এক অদ্ভূত দৃশ্য দেখা গেল কর্ণাটকের চিত্রদুর্গ জেলায়। রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী বি শ্রীরামুলু জেলা সফরে আসতেই ঘুচে গেল করোনার ভয়। সামাজিক দূরত্বের বিধি-টিধি মানার কথা মনেই আনলেন না বিজেপি সমর্থকরা। অভিযোগ শ্রীরামুলুকে একটি আপেলের মালা পরাতে গিয়ে যেভাবে ধাক্কাধাক্কি শুরু করেছিলেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা, যে বিশ্বব্যাপী কোনও মহামারি চলছে তা মনেই হবে না।

বি শ্রীরামুলু-র সঙ্গে এদিন চিত্রদুর্গ সফর করেন স্থানীয় বিজেপি বিধায়ক জি এইচ থিপরেড্ডি-ও। এই দুজনের আগমনে শয়ে শয়ে কর্মী সমর্থক এবং অনুগামীরা তাঁদের স্বাগত জানাতে রাস্তায় নামেন।

ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্য়াল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বিশাল সংখ্যক জনতা এসে সোল্লাশে মন্ত্রীকে আপেলের মালা পরাচ্ছেন। তাদের অনেকেরই মুখে নেই মাস্ক। 'দো গজ কি দূরি' তো দূরের কথা এক ছটাকেরর দূরত্বও ছিল না তাঁদের মধ্যে। এক অপরের ঘাড়ে উঠে পড়ছেন।

এই দুই নেতা চিত্রদূর্গয় আসেন একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। পেরিয়েরি দত্ত পিঠ মঠ দর্শন করতে যান। দিনের শুরুতে, তাঁরা বেদাবতী নদীতে 'বাগিনা' অর্থাৎ নৈবেদ্য-ও দিয়েছিলেন। মন্ত্রীমশাই বা বিধায়কের মুখেও ছিল না কোনও মাস্ক।

তবে কর্নাটকের বিজেপি সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রী এই প্রথম সামাজিক দূরত্বের বিধি ভাঙলেন তা নয়। গত ২৯ এপ্রিল চিত্রদুর্গে শ্রীরামুলু নেমেছিলেন রেশন সরবরাহ অভিযানে। সেখানেও বহু লোক জড়ো হয়েছিল। মন্ত্রী যেখানে রেশন সামগ্রী বিতরণ করছিলেন তার একেবারে কাছেই তারা জড়ো হয়েছিল। ভেঙে গিয়েছিল সামাজিক দূরত্বের বিধি।

কর্ণাটকে এখন অবধি মোট ৩৩০৮ জন করোনভাইরাস-এ সংক্রামিত হয়েছেন। রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫২ জনের।