প্রত্যেক দেশবাসীর আবেগ এবং দেহের ঐতিহ্য জড়িত জাতীয় পতাকার সঙ্গে। দূরে কোথায় এই তিন রঙা পতাকা উড়তে দেখলে গর্বে ভরে ওঠে প্রত্যেক দেশবাসীর মন। তবে দেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের জন্য রয়েছে কিছু বিশেষ নিয়ম। যা প্রত্যেক ভারতীয়র অবশ্যই জেনে রাখা প্রয়োজন।  

জাতীয় পতাকার যথাযথ ব্যবহার এবং সম্মানের জন্য ২০০২ সালে ভারত সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক বেশ কিছু নিয়মাবলী করেছিল যা 'ফ্ল্যাগ কোড অফ ইন্ডিয়া' নামে পরিচিত। ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ট ব্যুরো এই পতাকা তৈরির পদ্ধতি ও নির্দিষ্ট নিয়ম-কানুন স্থির করে দিয়েছে। আর সেই নিয়ম অনুযায়ী জাতীয় পতাকার তৈরির অধিকার কেবল খাদী উন্নয়ন ও গ্রামীণ শিল্প কমিশ্যন-এর হাতে রয়েছে। ১৯৬৮ সালে প্রথমবারের জন্য পতাকাবিধিটি গৃহীত করা হয়েছিল। এই বিধি বা নিয়ম আবার ২০০৮ সালে সংশোধন করা হয়।

  • স্বাধীনতা দিবস, গণতন্ত্র দিবস, মহাত্মা গান্ধীর জন্মদিন। রাজ্য প্রতিষ্ঠা দিবসের মত বিশেষ কতগুলি দিনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অথবা সরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা যাবে এবং উত্তোলিত অবস্থায় রাখা যাবে সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত হওয়ার আগে মুহূর্ত অবধি।
  • ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে দেশের জাতীয় পতাকা কোনভাবেই ব্যবহার করা যাবে না।
  • পোশাকের অংশ হিসেবে বা পোশাক রূপে জাতীয় পতাকা ব্যবহার করা যাবে না।
  • জাতীয় পতাকাকে কোনভাবেই সেলাই করা যাবে না। 
  • চাদর, গামছা, রুমালের মত কোনও কিছুতেই এই পতাকা প্রতীক হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না।
  • জাতীয় পতাকার উপর কোনও রকম  লেখা বা কালির দাগ দেওয়া যাবে না।
  • উল্টোভাবে জাতীয় পতাকা ব্যবহার করা মানে তা জাতির অবমাননা।
  • জাতীয় পতাকার ব্যবহার করে কোন কিছু বহন করা যাবে না।
  • জাতীয় পতাকা ছিঁড়ে গেলে অথবা ক্ষতিগ্রস্ত অবস্থায় উত্তোলন করা অথবা অন্য কোন কাজে ব্যবহার করা নিষিদ্ধ।
  • সূর্যাস্তের আগে জাতীয় পতাকাকে  যথাযথ মর্যাদায় নামিয়ে নিতে হবে। আবার পতাকা উত্তোলন করলে সূর্যাস্তের আগে অবধি উত্তোলিত অবস্থাতেই রাখতে হবে।
  • বিশেষ দিন ছাড়া রবিবার ও অন্যান্য ছুটির দিন পতাকা উত্তোলন বন্ধ থাকবে। এছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, সস্তা প্লাস্টিকের তৈরি জাতীয় পতাকা ব্যবহার করা উচিত নয়।
  • জাতীয় পতাকার আকার অবশ্যই আয়তাকার হতে হবে। যার মাপ হবে ৩:২ অনুপাতে। 
  • বিশিষ্ট দেশ প্রধান বা গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে বিমানে ৪৫০x৩০০ মিলিমিটার সাইজের জাতীয় পতাকায় অশোক চক্রের মাপ হতে হবে ৯০ মিলিমিটার। 
  • গাড়িতে জাতীয় পতাকা ব্যবহার করলে ২২৫x১৫০ মিলিমিটার মাপের। সেক্ষেত্রে অশোক চক্রের মাপ হবে ৪০ মিলিমিটার।