বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর সংসদে পাস হল তিনটি শ্রম আইন সংস্কার বিল। মঙ্গলবারই এই তিনটি বিল লোকসভার অনুমোদন পেয়েছিল। এদিন শিল্প সম্পর্ক, সামাজিক সুরক্ষা এবং পেশাগত সুরক্ষা সম্পর্কিত এই তিনটি শ্রম সংস্কার বিল ধ্বণি ভোটে পাস হয় রাজ্যসভায়। তারপরই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করে বললেন, এই সংস্কারগুলি শ্রমিকদের সুস্থতা নিশ্চিত করবে এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির বিকাশ ঘটাবে।

এই সংস্কারকে তিনি 'ন্যূনতম সরকার, সর্বোচ্চ পরিষেবা'র উজ্জ্বল উদাহরণ হিসাবে বর্ণনা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, নতুন শ্রম আইন সর্বনিম্ন মজুরি ব্যবস্থাকে সার্বজনীন করে তুলবে এবং সময়মতো মজুরি প্রদান ও শ্রমিকদের পেশাগত সুরক্ষাকে অগ্রাধিকার দেবে। তাঁর মতে এই সংস্কারের ফলে ভাল কাজের পরিবেশ তৈরি হবে, যার ফলে  অর্থনৈতিক বিকাশের গতি ত্বরান্বিত হবে।

সেই সঙ্গে এই সংস্কার 'ইজ অফ ডুইং বিজনেস'কে নিশ্চিত করবে বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। কারণ 'সম্মতি, লাল ফিতের বাধা, এবং ইন্সপেক্টর রাজ'-এর মতো বিষয়গুলি কমিয়ে উদ্যোগপতিদের সহায়তা করবে। প্রযুক্তির শক্তিকেও কাজে লাগানোর কথা মাথায় রেখে এইসকল সংস্কার করা হয়েছে। এতে করে সংস্কারগুলি শ্রমিকদের এবং শিল্পের - উভয়েরই উন্নতি হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন নরেন্দ্র মোদী।